চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ভারতে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন পর্যবেক্ষণের অনুমতি চায় ইউএনএইচসিআর

জাতিগত নিধনের শিকার হয়ে ভারতে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গা শরণার্থীদের প্রতিকূল পরিবেশে মিয়ানমারে ফেরত পাঠানোর সিদ্ধান্তকে দু:খজনক বলে মন্তব্য করেছেন জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআর।

রোহিঙ্গাদের আটক এবং ফেরত পাঠানোর বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করতে অনুমতি চায় সংস্থাটি।

বিজ্ঞাপন

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্য থেকে পালিয়ে এসে ভারতে আশ্রয় চাওয়া এবং জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআর এর তালিকাভুক্ত শরণার্থী পরিবারকে গত ৩ জানুয়ারি মিয়ানমারে ফেরত পাঠানো হয়।

গত তিন মাসে দ্বিতীয়বারের মত রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠানোর ওই ঘটনা ঘটলো।

আশ্রয় চাওয়া ওই পরিবারটি ২০১৩ সালে মিয়ানমার থেকে অবৈধভাবে ভারতের আসামে প্রবেশের সময় আটক হয়।তারপর থেকেই তারা অবৈধভাবে প্রবেশের অপরাধে জেলে আটক ছিলেন।

বিজ্ঞাপন

এরপরও রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনে সহায়তা করতে এবং আটক হওয়া রোহিঙ্গাদের পরিস্থিতি নিরুপণ করে ফেরত পাঠানোর সিদ্ধান্তে স্বেচ্ছাশ্রম দিতে চাওয়া ইউএনএইচসিআর এর কোন ব্যক্তিকে অনুমতির বিষয়ে কোন সাড়া দিচ্ছে না দেশটির কর্তৃপক্ষ।

মিয়ানমার-মানবতাবিরোধী অপরাধ-অ্যামনেস্টি-ইন্টারন্যাশনাল-রোহিঙ্গা২০১৮ সালের অক্টোবরের পর এটি ছিলো প্রত্যাবাসনের দ্বিতীয় ঘটনা। এর আগে ভারত প্রতিকূল পরিবেশের মধ্যেই সাতজন রোহিঙ্গাকে মিয়ানমার রাখাইন রাজ্যে ফেরত পাঠায়।

রোহিঙ্গাদের আটক, ফেরত পাঠানোর বিশ্বাসযোগ্য তথ্য পাওয়ার পর ইউএনএইচিসআর এর পক্ষ থেকে তাদের সেখানে থাকতে দিয়ে আন্তর্জাতিক শরণার্থী সুরক্ষার জন্য তাদের প্রয়োজনীয়তার বিষয়টি মূল্যায়ন করার সুযোগ দেওয়ার আহ্বান জানালেও ভারতীয় কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে কোন সাড়া দেয়নি।

ইউএনএইচসিআর এর পক্ষ থেকে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের বিষয়ে ভারতের কাছ থেকে তাদের কাজের অনুমতি পাওয়ার আবেদন অব্যাহত রেখেছে।

ভারতের বিভিন্ন এলাকায় অবস্থান নেয়া প্রায় ১৮ হাজার রোহিঙ্গা শরণার্থী আশ্রয় লাভের জন্য ইউএনএইচসিআর এর কাছে তালিকাভুক্ত হন।

Bellow Post-Green View