চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ভারতে একদিনে আক্রান্ত ও মৃত্যুর রেকর্ড

ভারতে একদিনে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সব রেকর্ড ভেঙেছে। শেষ ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে প্রায় ১ লাখ ৯০ হাজার মানুষ। মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ২৬ জনের।

ভারতের গণমাধ্যমগুলো বলছে, ছয় মাস আগের রেকর্ড ভেঙে গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে সর্বোচ্চ মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ২৬ জনের। গত বছরের ১৭ অক্টোবর সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড ছিল ১ হাজার ৩২ জন।

করোনাভাইরসের পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটার জানিয়েছে, গত ১০ দিন ধরে ভারতে সংক্রমণ ছিল এক লাখের ওপরে, গত সাতদিন ধরে তা বাড়তে বাড়তে দেড় লাখ ছাড়ায়। বুধবার তা ১ লাখ ৮৫ হাজার ২৪৮ জনে পৌঁছে ।

এখন বিশ্ব সংক্রমণ বিবেচনায় যুক্তরাষ্ট্রের পরই ভারতের অবস্থান। এ নিয়ে দেশে মোট আক্রান্ত দাঁড়ালো ১ কোটি ৩৮ লাখ ৭১ হাজার ৩২১ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় ভারতে মৃত্যু হয়েছে ১ হাজারের বেশি। এ নিয়ে দেশটিতে ১ লাখ ৭২ হাজার ১১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে করোনাভাইরাসে। তবে সক্রিয় রোগীর সংখ্যায় বিপুল বৃদ্ধি নতুন করে উদ্বেগ তৈরি করছে।

বিজ্ঞাপন

দ্বিতীয় ঢেউয়ের শুরুতে মহারাষ্ট্রসহ হাতে গোনা কয়েকটি রাজ্যে বাড়ছিল দৈনিক সংক্রমণ। কিন্ত গত এক সপ্তাহে দেশের বেশ কয়েকটি রাজ্যের পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে।

তবে সবচেয়ে খারাপ অবস্থা মহারাষ্ট্রেই। রাজ্যটিতে মোট মৃত্যু ৫৮ হাজার ২৪৫ জন। এরপর দিল্লি এবং উত্তরপ্রদেশে খুব দ্রুত অবনতি হয়েছে পরিস্থিতির। দিল্লিতে মৃত্যু ১১ হাজার ৩৫৫ ও উত্তরপ্রদেশে ৯ হাজার ২২৪ জন।

দৈনিক আক্রান্ত এবং মৃত্যু বাড়ছে তামিলনাড়ুতে, রাজ্যটিতে মোট মৃত্যু হয়েছে ১৩ হাজার জন, পশ্চিমবঙ্গে মোট মৃত্যু ১০ হাজার ৪১৪ জন,পাঞ্চাবে মোট মৃত্যু ৭ হাজার ৫৫৯জন, ওড়িশাতে মোট মৃত্যু ১ হাজার ৯২৮ জন, কর্নাটকে মোট মৃত্যু ১২ হাজার ৯৪১ জন।

এছাড়াও তেলেঙ্গানা, হরিয়ানার সংক্রমণ পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। বিহার, ঝাড়খণ্ড, উড়িষ্যাতেও বাড়ছে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা।

ভারতে আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি নিয়ে উদ্বেগ বাড়ছে প্রশাসনের। সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আনতে ইতোমধ্যেই দেশটির বিভিন্ন রাজ্যে লকডাউনের কড়াকড়ি ফিরিয়ে আনা হয়েছে। রাত্রিকালীন কার্ফুও চলছে। পাশাপাশি ভ্যাকসিন কার্যক্রম চলছে জোরকদমে।

বিজ্ঞাপন