চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ভারতীয় সুপ্রিমকোর্টের কাছে ‘নিঃশর্ত ক্ষমা’ চাইলেন রাহুল গান্ধী

ভারতের সুপ্রিমকোর্ট সম্পর্কে ভুল তথ্য দিয়ে নির্বাচনী প্রচারণায় বক্তব্যের কারণে নিঃশর্ত ক্ষমা চেয়েছেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী।

বুধবার বিজেপির আইনজীবীর করা পিটিশনের নিষ্পত্তি চেয়ে রাহুল গান্ধী সুপ্রিমকোর্টের কাছে নিঃশর্ত ক্ষমা চেয়েছেন।

বিজ্ঞাপন

রাফাল ফাইটার ক্রয় নিয়ে দুর্নীতির সমালোচনা করতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে ‘চৌকিদার চোর হ্যায়’ বলে মন্তব্য করেছিলেন রাহুল গান্ধী। পরে তিনি নির্বাচনী প্রচারণায় বলেছিলেন, ‘সুপ্রিম কোর্টও এই কথা বলেছে।’

এনডিটিভি জানায়, এমন মন্তব্যের জন্য সুপ্রিমকোর্টের কাছে রাহুল গান্ধী তার হলফনামায় দু:খ প্রকাশ করেছেন। তার ওই মুচলেকায় বলা হয় সম্পূর্ণরূপে অনিচ্ছাকৃত, অসাবধানী এবং অযৌক্তিকভাবে এমন মন্তব্য করছেন। সুপ্রিমকোর্ট দেশের সর্বোচ্চ সম্মানের জায়গা, এখানে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে এমন কিছু করা ঠিক নয় যা প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে ন্যায় বিচার পেতে বাধা সৃষ্টি করে।

তবে গত সপ্তাহে দেয়া এক টিভি সাক্ষাতকারে রাহুল গান্ধী বলেন, সুপ্রিমকোর্টের কাছে ক্ষমা চাওয়ার অর্থ এই নয় যে মোদির কাছে ক্ষমা চাওয়া। আমি মোটেও মোদির কাছে ক্ষমা প্রার্থী নই।

বিজ্ঞাপন

‘সুপ্রিমকোর্ট এই কথা বলেছে’ এই মন্তব্য করায় বড় ভুল হয়েছে আমার। তবে আমি মোটিও চৌকিদার চোর হ্যায় বলার জন্য ক্ষমা প্রার্থী না।

রাহুল গান্ধীর করা ‘চৌকিদার চোর হ্যায়’ এর সাথে সুপ্রিমকোর্ট সম্মতি প্রকাশ করেছে এমন মন্তব্য করে রাহুল গান্ধীর বক্তৃতার পর বিজেপির করা পিটিশনে গত ১০ এপ্রিল রুল জারি করেন সুপ্রিমকোর্ট।

বিজেপি সদস্যের করা ওই পিটিশনে কংগ্রেস প্রেসিডেন্টকে কোর্টের কাছে জবাবদিহি করতে বলা হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে বিচারক দাবি করেছেন, কোর্টে রাহুল তার অবস্থান ব্যাখ্যা করেছেন।

এরপর সুপ্রিমকোর্টের কাছে দেয়া ওই ব্যাখ্যায় রাহুল গান্ধী দু:খ প্রকাশ করেছেন বলে সুপ্রিমকোর্টের নোটিশে জানানো হয়।

রাহুল গান্ধী বলেছেন, ‘রাফাল জেট নিয়ে সুপ্রিমকোর্টের দেয়া রায় না দেখেই, না পড়েই, বিশ্লেষণ না করেই, ভুলভাবে সুপ্রিমকোর্টকে উদ্ধৃত করায় আমি দু:খ প্রকাশ করছি।’

Bellow Post-Green View