চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ভারতকে গম রপ্তানি নিষিদ্ধের সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনায় যুক্তরাষ্ট্রের আহ্বান

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র আশা করছে ভারত তার গম রপ্তানি নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্তটি পুনর্বিবেচনা করবে।

ইউক্রেনে রাশিয়ার আক্রমণের ফলে সৃষ্ট সংকট বিশ্বে খাদ্য ঘাটতিকে বাড়িয়ে তুলতে পারে। এমন অবস্থায় ওয়াশিংটন অন্যান্য দেশগুলিকে রপ্তানি সীমাবদ্ধ না করার জন্য উৎসাহিত করবে বলে জানিয়েছে দেশটি।

Reneta June

এনডিটিভি জানায়, জাতিসংঘে মার্কিন রাষ্ট্রদূত লিন্ডা থমাস-গ্রিনফিল্ড সোমবার নিউইয়র্ক ফরেন প্রেস সেন্টারের একটি ভার্চুয়াল ব্রিফিংয়ের সময় বলেন, আমরা ভারতের সিদ্ধান্তের প্রতিবেদনটি দেখেছি। আমরা অন্যান্য দেশগুলিকে রপ্তানি সীমাবদ্ধ না করার জন্য উত্সাহিত করছি। কারণ আমরা মনে করি রপ্তানির উপর কোনও সীমাবদ্ধতা খাদ্য ঘাটতি আরও বাড়িয়ে তুলবে।

বিজ্ঞাপন

মিস থমাস-গ্রিনফিল্ড ভারতের গম রপ্তানি সীমাবদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়ে একটি প্রশ্নের জবাবে আরও বলেন, আমরা আশা করি যে তারা অন্যান্য দেশের উদ্বেগের কথা শুনে, তারা সেই অবস্থান পুনর্বিবেচনা করবে।

প্রেস ট্রাস্ট অব ইন্ডিয়ার বরাতে এনডিটিভি জানায়, বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম গম উত্পাদক ভারত। দেশটিতে তীব্র তাপপ্রবাহের কারণে গম উৎপাদনে বিরূপ প্রভাবের সম্ভাবনাকে সামনে রেখে ভারত সম্প্রতি গম রপ্তানি নিষিদ্ধ করেছে।

গত এক বছরে বিশ্ববাজারে গমের দাম গড়ে ১৪ থেকে ২০ শতাংশ বেড়েছে। এই সিদ্ধান্তটি ভারতে গম এবং গমের আটার খুচরা মূল্য নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করবে বলে এনডিটিভির অনলাইন প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে। এর মাধ্যমে প্রতিবেশী এবং দুর্বল দেশগুলির খাদ্যশস্যের চাহিদা মেটাতে সক্ষম হবে দেশটি।

মার্কিন রাষ্ট্রদূত বলেন ইউক্রেন উন্নয়নশীল বিশ্বের জন্য একটি রুটির বাস্কেট ছিল। কিন্তু যখন থেকে রাশিয়া গুরুত্বপূর্ণ বন্দরগুলি অবরুদ্ধ করে বেসামরিক অবকাঠামো এবং শস্য ক্ষেত্র ধ্বংস করা শুরু করেছে আফ্রিকা এবং মধ্যপ্রাচ্যে ক্ষুধার পরিস্থিতি আরও ভয়াবহ হয়ে উঠছে।

এটি সমগ্র বিশ্বের জন্য একটি সংকট বলে মনে করেন তিনি। এ সংকট কাটাতে দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণের জোর দাবি জানান তিনি।