চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ভক্তদের যত উদ্ভট দাবী

২৯ বছর বয়সী সংগীত কুমার দাবী করেছেন ঐশ্বরিয়া রাই নাকি তার মা। মিস ওয়ার্ল্ড হওয়ার আগে মাত্র ১৪ বছর বয়সে নাকি কৃত্রিম প্রজনন পদ্ধতি আইভিএফ এর মাধ্যমে লন্ডনে জন্ম হয়েছিল তার। যদিও কোনো প্রমাণ কিংবা বাবার পরিচয় দিতে পারেনি যুবকটি।

চমকে যাওয়ার মতো খবর বটে! তবে মজার ব্যাপার হচ্ছে, তারকাদের উদ্দেশ্য করে এমন দাবী এই প্রথম নয়। এর আগেও অনেক তারকাকে নিয়েই ভক্তরা অদ্ভুত সব দাবী করেছেন। জেনে নিন তেমনই মজার কিছু উদ্ভট দাবী সম্পর্কে:

অভিষেকের আরেক স্ত্রী: ২০০৭ সালে জানভি কাপুর নামের একটি মেয়ে দাবী করেছিলেন তিনি নাকি অভিষেক বচ্চনের বিবাহিত স্ত্রী। ঐশ্বরিয়া রাইকে বিয়ে করার সময়টাতেই এমন দাবী তুলেছিলেন সেই নারী। শুধু দাবী তুলেই ক্ষান্ত থাকেননি তিনি। বিয়ের অনুষ্ঠানের সময় বচ্চন রেসিডেন্সের সামনে গিয়ে সাংবাদিকদের সামনে হাতও কেটেছেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

কঙ্গনার বয়ফ্রেন্ড: কঙ্গনাকে নিয়ে অভিযোগ আছে যে তিনি নাকি কল্পনাতেই অনেকের সঙ্গে নিজেকে সম্পর্কে জড়ান। কিন্তু এমন ঘটনা কিন্তু কঙ্গনার সাথেও ঘটেছে। ২০১০ সালে আকাশ ভার্দওয়াজ নামের এক ব্যক্তি কঙ্গনাকে চিঠি লিখা শুরু করেন। চিঠির ভাষা এমন ছিল, যেন কঙ্গনার সঙ্গে তার সম্পর্ক আছে। কঙ্গনার পিছু নিয়ে তার জিমে এবং শুটিং-এ চলে যেতেন সেই ব্যক্তি। পরে কঙ্গনা পুলিশে অভিযোগ করেন এবং সেই ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়।

ধানুশের বাবা-মা: মেলুরের এক দম্পতি আর ক্যাথিরেসান এবং তার স্ত্রী কে মীনাক্ষী ২০১৬ সালে দাবী করেন যে অভিনেতা ধানুশ তাদের সন্তান। তারা ধানুশের থেকে প্রতি মাসে খরচ পাঠানোর দাবীও করেন। তবে মাদ্রাজ হাই কোর্ট থেকে এই মামলা খারিজ করে দেয়া হয়।

শহীদ কাপুরের উত্যক্তকারী স্ত্রী: অভিনেতা রাজ কুমারের মেয়ে বাস্তবিকা পণ্ডিত দাবী করেছিলেন তিনি নাকি শহীদ কাপুরের স্ত্রী। এই নারী শহীদ কাপুরের বাড়ির পাশেই বাসা নিয়েছিলেন এবং নিয়মিত উত্যক্ত করতেন শহীদ কাপুরকে। মিডিয়ার মনোযোগ আকৃষ্টকারী এই নারীর যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পেতে শহীদ কাপুর আইনি পদক্ষেপ নিয়েছিলেন।

শাহরুখের মা: ১৯৯৬ সালে মালানবাই নামের এক নারী নিজেকে শাহরুখ খানের মা বলে দাবী করেন। সেই নারী মুম্বাই হাই কোর্টে একটি মামলাও করেন। তবে ২০১৭ সালে এই মামলা খারিজ করে দেয়া হয়। ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

বিজ্ঞাপন