চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ব্রিটেনের স্বাস্থ্যমন্ত্রীও করোনায় আক্রান্ত

ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের পর এবার করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার কথা জানিয়েছেন দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী ম্যাট হ্যানকক।

শুক্রবার তিনি এক টুইটে এ খবর জানান।

বিজ্ঞাপন

ম্যাট হ্যানকক টুইটারে দেওয়া ভিডিওতে জানান: ‘করোনাভাইরাসের বড় লক্ষণ ছিল না। তবে পরীক্ষায় করোনাভাইরাস ধরা পড়ে। এখন স্বেচ্ছায় আইসোলেশনে রয়েছি। বাসা থেকে অফিস করব।’

বিজ্ঞাপন

এর আগে যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার খবরও টুইটারে নিজের ভেরিফায়েড অ্যাকাউন্টে জানান।

বরিস তার টুইট বার্তায় জানান: ‘গত ২৪ ঘণ্টায় আমি আমার শরীরে করোনাভাইরাসের উপসর্গগুলো লক্ষ্য করি। এরপর টেস্ট করার সিদ্ধান্ত নেই।

বিজ্ঞাপন

আজ শুক্রবার টেস্ট করার পর আমার শরীরে করোনা পজিটিভ ধরা পড়ে। এরপর থেকে আমি নিজেকে সকলের থেকে বিচ্ছিন্ন রেখেছি।’

করোনায় আক্রান্ত হলেও ব্রিটেনে এ ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন তিনি। বলেছেন: এ সময়ে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে করোনার বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাবো এবং সম্মিলিতভাবে একে পরাজিত করবো৷

এর আগে অস্ট্রেলিয়ার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, স্পেনের প্রধানমন্ত্রীর স্ত্রী, কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর স্ত্রী  এবং ব্রিটেনের যুবরাজ চার্লস পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হন।

ব্রিটেনে ইতোমধ্যেই আক্রান্ত হয়েছেন ১৪ হাজার ৭৫৯ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৭৫৯ জনের। ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে সেখানে চলছে লকডাউন।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা ২৪ হাজার ছাড়িয়েছে। চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে ১ লাখ ২৩ হাজার ৯৪২ জন। এখন পর্যন্ত করোনায় সবচেয়ে বেশি আক্রান্তের সংখ্যা যুক্তরাষ্ট্রে। এর আগ পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ছিল চীনে।