চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ব্রিটেনের নতুন প্রধানমন্ত্রী টেরেসা মে’র শপথ

নতুন মন্ত্রিসভা ঘোষণা করেছেন ব্রিটেনের ৭৬ তম প্রধানমন্ত্রী টেরেসা মে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে বরিস জনসনের নাম ঘোষণা ছাড়াও অন্যতম চমক ছিলো ‘আন্তর্জাতিক বাণিজ্য’ নামের নতুন মন্ত্রণালয়ের অন্তর্ভুক্তি। দায়িত্ব নেয়ার পর দেশের জনগণকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বানও জানান নতুন প্রধানমন্ত্রী।

প্রথম সংবাদ সম্মেলনে এক জাতি হিসেবে কাজ করার আহ্বান জানান যুক্তরাজ্যের টেরেসা মে। একই সঙ্গে উন্নত রাষ্ট্র হিসেবে যুক্তরাজ্যকে পুনর্প্রতিষ্ঠার প্রতিশ্রুতি দেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

দায়িত্ব নিয়েই ক্যাবিনেট পুনর্গঠন করেছেন মার্গারেট থ্যাচারের পর ব্রিটেনের দ্বিতীয় নারী প্রধানমন্ত্রী। পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে তিনি ব্রেক্সিটপন্থী নেতা বরিস জনসনের নাম ঘোষণা করেন। ক্যামেরন সরকারের চ্যান্সেলর জর্জ অসবর্নকে অব্যাহতি দিয়ে ফিলিপ হেমন্ডকে ওই দায়িত্ব দিয়েছেন টেরেসা।

বিজ্ঞাপন

এছাড়াও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্বে অ্যাম্বার রুড, প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে মাইকেল ফ্যালন, আন্তর্জাতিক বাণিজ্য নামের নতুন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে লিয়াম ফক্স এবং ইইউ এক্সিট সচিব হিসেবে ডেভিড ডেভিসের নাম ঘোষণা করে টেরেসা সরকার।

এর আগে রাণী দ্বিতীয় এলিজাবেথের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দেন বিদায়ী প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন। রাণীর বাকিংহাম প্যালেস থেকে তার পদত্যাগপত্র গ্রহণের ঘোষণা আসে। এরপর নতুন সরকার গঠনের জন্য টেরেসা মেকে আহ্বান জানান রাণী দ্বিতীয় এলিজাবেথ।

বিদায়ী প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন এক বক্তৃতায় তার সময়ে নেয়া অর্থনৈতিক, সামাজিক ও পররাষ্ট্র বিষয়ক নানা পদক্ষেপের বিষয় তুলে ধরেন। একই সাথে উত্তরসূরি টেরেসা মেকে উষ্ণ অভিনন্দন জানান।

Bellow Post-Green View