চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ব্যাংকের এটিএম জালিয়াতির ঘটনায় আতঙ্কিত গ্রাহক

ব্যাংকের এটিএম বুথ থেকে গ্রাহকের তথ্য চুরি করে ক্লোন কার্ড দিয়ে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ার ঘটনায় উদ্বিগ্ন গ্রাহকরা। তারা বলছেন, অর্থের সঙ্গে নিজেদের তথ্যের নিরাপত্তাও জরুরি। জালিয়াতি ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে বিচারের দাবি জানিয়েছেন তারা।

বিদেশী চক্রের যোগসাজশে গ্রাহকের কোটি কোটি টাকা এটিএম বুথ থেকে হাতিয়ে নেয়া হয়েছে, এমন অভিযোগ পুলিশকে জানায় ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক – ইউসিবি। ওই ঘটনার পর ঢাকার বেশ কয়েকটি এলাকার এটিএম বুথের নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

সাধারণ গ্রাহকরা বলেছেন, এতে একদিকে কার্ড ব্যবহারে তারা যেমন আতঙ্কিত, তেমনি কার্ডে সন্দেহও বেড়েছে তাদের।

বিজ্ঞাপন

নিয়মিত এটিএম ব্যবহারকারী এক গ্রাহক বলেন, এটি আসলেই খুবই ভাবনার একটি বিষয়। জালিয়াতরা খুবই বুদ্ধিমান এবং যথেষ্ট শিক্ষিত বলে বিশ্বাস তার। আমাদের দেশের খুব কম মানুষই এসব বিষয় নিয়ে চিন্তা করে বলে এ ধরণের জালিয়াতি সম্পর্কে সবার সচেতন হওয়া উচিৎ বলে মনে করেন তিনি।

নিজের ব্যক্তিগত তথ্য অন্যের কাছে যাওয়ার এ ঘটনায় যারা জড়িত তাদের খুঁজে বের করে শাস্তিরও দাবি জানিয়েছেন তারা। ‘ব্যাংকের বুথ থেকেই যদি এমনভাবে টাকা খোয়া যায় তবে তো এটা আমাদের সবার জন্য ভয়ের একটা ব্যাপার,’ বলেন আরেক শঙ্কিত গ্রাহক, ‘দেশ এবং দেশের মানুষের জন্য এটা একটা বড় হুমকি।’

এই অপরাধকে কঠোর হাতে দমন করে ভবিষ্যতে এমন ঘটনা যেনো না ঘটে সেজন্য গ্রাহকরা সব ধরনের পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। এটিএম বুথ ব্যবহারে জনগণের নিরাপত্তার প্রয়োজন রয়েছে বলে মনে করেন তারা।

দেশের নানা প্রান্তে প্রায় ৭ হাজার এটিএম বুথের মাধ্যমে দেশ জুড়ে ব্যাংকগুলো গ্রাহকদের সেবা দিয়ে যাচ্ছে। বুথগুলোতে রয়েছে সিসি ক্যামেরা। এরই মধ্যে গত বৃহস্পতি ও শুক্রবার দু’দিনে বিভিন্ন বুথ থেকে স্কিমিং ডিভাইস দিয়ে গ্রাহকদের তথ্য নিয়ে ক্লোন কার্ড দিয়ে টাকা তুলে নেয়া হয়।

Bellow Post-Green View