চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বেসরকারিকরণের পথে ভারতের ৪টি সরকারি ব্যাংক

বেসরকারিকরণের মাধ্যমে টাকা তোলার জন্য ৪টি সরকারি ব্যাংককে শর্টলিস্ট করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। রাজস্ব বৃদ্ধি করার জন্য ভারত সরকার এমনটি করছে বলে আন্তর্জাতিক সংবাদসংস্থা রয়টার্সের বরাতে হিন্দুস্থান টাইমস জানিয়েছে।

প্রতিবেদনে প্রকাশ, ব্যাংক বেসরকারিকরণের ক্ষেত্রে রাজনৈতিকভাবে তীব্র বিরোধিতার পাশাপাশি হাজার হাজার কর্মচারীর চাকরি সংকটের কথা চিন্তা করে আপাতত মাঝারি স্তরের ব্যাংকগুলি দিয়ে প্রক্রিয়া শুরু করতে আগ্রহী ভারত সরকার। যে ৪ ব্যাংককে শর্টলিস্ট করা হয়েছে, সেগুলি হলো ব্যাংক অফ মহারাষ্ট্র, ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া, ইন্ডিয়ান ওভারসিজ ব্যাংক ও সেন্ট্রাল ব্যাংক। দুইজন কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে রয়টার্সকে এ কথা জানিয়েছে কারণ ভারত সরকার এখনও আনুষ্ঠানিক ভাবে এ তথ্য প্রকাশ করেনি।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

জানা গিয়েছে, পরের অর্থবর্ষে দুটি ব্যাংককে বেসরকারিকরণের চেষ্টা করতে পারে ভারত সরকার। যদি ভালো সাড়া পাওয়া যায়, তাহলে আগামী কয়েক বছরে বড় কিছু ব্যাংকের ক্ষেত্রে বেসরকারিকরণের চেষ্টা করা হবে। যদিও এ বিষয়ে অর্থমন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে কিছু বলা হয়নি।

গত কিছুদিন ধরে নানা সমস্যায় ধুঁকছে ভারতের ব্যাংকিং সেক্টর। করোনার জন্য পরিস্থিতি আরও জটিল হয়েছে। সেজন্যই এ সেক্টরকে ঢেলে সাজাতে চাইছে ভারত সরকার। প্রথমে পরের বছর ৪টি ব্যাংককে বিক্রি করার কথা ভেবেছিল, কিন্তু ইউনিয়নদের চাপের কথা ভেবে দুটি ব্যাংককে আপাতত বিক্রি করার পরিকল্পনা করা হয়েছে বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

ব্যাংক অফ ইন্ডিয়ায় ৫০ হাজার কর্মী আছেন, সেন্ট্রাল ব্যাংক অফ ইন্ডিয়ায় ৩৩ হাজার। ওভারসিজ ব্যাংকে ২৬ হাজার। তবে ব্যাংক অফ মহারাষ্ট্রে মাত্র ১৩ হাজার কর্মী আছেন। তাই সেটাই সবচেয়ে আগে সরকার বেসরকারিকরণের জন্য বেছে নিতে পারে বলে সূত্রের খবর। তবে সেই প্রক্রিয়া শুরু হতে ৫-৬ মাস লাগবে বলে মনে করা হচ্ছে।