চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বেনজেমাকে মেসির মতোই বিপজ্জনক ভাবছেন গার্দিওলা

প্রথম লেগটা ২-১ গোলে জিতেছেন, সেটা আবার রিয়াল মাদ্রিদের মাঠে। প্রায় ছয় মাস বাদে দ্বিতীয় লেগ হচ্ছে, নিজেদের মাঠে, কিন্তু শান্তি পাচ্ছেন না ম্যানচেস্টার সিটি কোচ পেপ গার্দিওলা। জিনেদিন জিদানের ঠাণ্ডা মাথা আর করিম বেনজেমার আগুনে ফর্ম নিয়ে বেশ দুশ্চিন্তায় বার্সেলোনার সাবেক কোচ।

‘প্রথম লেগ হয়েছে অনেকদিন আগে, এটা অনেকদিন আগের কাহিনী। প্রথম লেগ আর দ্বিতীয় লেগের মধ্যে অনেক পার্থক্য।’

বিজ্ঞাপন

রিয়ালকে যখন তাদেরই মাঠে হারিয়েছিল ম্যানসিটি, তখনও করোনা জাঁকিয়ে বসেনি ইউরোপে, সান্তিয়াগো বার্নাব্যু ভর্তি ছিল দর্শকে। এখন ম্যানসিটি খেলবে নিজেদের মাঠে, কিন্তু দর্শকবিহীনভাবে। গার্দিওলার ভাবনা কাজ করছে এখানেও।

‘আমরা ঘরে খেলবো ঠিকই, কিন্তু সমর্থক ছাড়া। খেলাটা দর্শকদের জন্যই। দর্শকসারিতে যারা বসেন, তাদের জন্য ও নিজেদের জন্যই খেলোয়াড়রা খেলতে চায়। এবার সেটা সম্ভব হচ্ছে না। এটাই বাস্তবতা। স্বাস্থ্য সবার আগে।’

বিজ্ঞাপন

রিয়ালের বিপক্ষে নিজের রক্ষণ নিয়ে যেমন দুশ্চিন্তা আছে গার্দিওলার, তেমনি দুশ্চিন্তা প্রতিপক্ষের ফরোয়ার্ড করিম বেনজেমাকে নিয়েও, ‘বেনজেমা অসাধারণ, দারুণ।’

‘যখন বার্সেলোনাতে ছিলাম, তখন ২০জন খেলোয়াড় ছিল লিওনেল মেসির সমপর্যায়ে যেতে। লোকজন জিজ্ঞেস করলে আমি বেনজেমাকে সেই ২০জনের তালিকায় রাখতাম।’

এদিকে শনিবার রাতে দ্বিতীয় লেগ খেলতে ম্যানচেস্টারে পৌঁছে পরিকল্পনা আঁটছে রিয়াল। কঠিন এক ম্যাচকে সামনে রেখে বেশ শান্তই আছেন লস ব্লাঙ্কোসদের লা লিগা জেতানো ফরাসি কোচ জিদান। ম্যানসিটির বিপক্ষে লড়তে বিশ্বস্ত দলটাকেই নিয়ে গেছেন তিনি। মাদ্রিদে রেখে গেছেন হামেস রদ্রিগেজ ও গ্যারেথ বেলের মতো খেলোয়াড়কে।

অবাক করার বিষয় হচ্ছে রিয়ালের সফরসঙ্গী হয়েছেন নিয়মিত অধিনায়ক সার্জিও রামোসও। নিষেধাজ্ঞার কারণে তার দ্বিতীয় লেগে খেলার সম্ভাবনা নেই। ড্রেসিংরুমে সতীর্থদের চাঙ্গা রাখার উদ্দেশ্যেই রামোসকে সঙ্গী করেছেন জিদান।