চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বৃহৎ কৃষিযন্ত্রের প্রদর্শনীতে স্বয়ংক্রিয় যন্ত্রের পসরা

চীনের হুবেই প্রদেশের উহানে অনুষ্ঠিত এশিয়ার বৃহৎ কৃষিযন্ত্রের প্রদর্শনীতে এবার প্রাধান্য পেয়েছে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাসম্পন্ন কৃষিযন্ত্র।

২ লাখ ২০ হাজার বর্গমিটার এলাকায় কৃষিযন্ত্রের পসরা। জড় প্রকৃতি ছেড়ে যন্ত্রগুলো এখন অনেকটা প্রানবন্ত। ৩০ দেশের ১ হাজার ৯০০ প্রতিষ্ঠানের যান্ত্রিক পণ্যের অভিনব প্রদর্শনী নতুন উচ্চতায় তুলে ধরেছে কৃষিতে।

বিজ্ঞাপন

প্রদর্শনী উপলক্ষে ছিল সাতটি আন্তর্জাতিক সেমিনার, দশটি নীতি নির্ধারণী সভাসহ নানা আয়োজন।

কৃষি যান্ত্রিকীকরণে বিশ্ব এগিয়েছে কতটুক তার সমীকরণ কষতে এখানে যোগ দেন ব্যবসায়ী, উদ্যোক্তা, বিজ্ঞানী থেকে শুরু করে গণমাধ্যমের কৃতি ব্যক্তিরা।

জাপানের সাংবাদিক ইয়োশিসুকে কিসিদা বলেন, প্রদর্শনীর আয়োজন গতবারের মতই। কৃষি যন্ত্রের উৎকর্ষ এবার বেশ লক্ষ্যনীয়।

ভারতীয় সাংবাদিক এস কে আলী বলেন, গতবারের চেয়ে এবারের আয়োজনটি বেশ গোছানো। অংশগ্রহণকারী কোম্পানিগুলো কাজের সুফল পাচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

তাদের কাছে এ প্রদর্শনী অনেক লাভজনক।

প্রদর্শনীতে এসে নিজেদের স্বার্থ এবং সীমাবদ্ধতার হিসেব কষছেন বাংলাদেশের কৃষি যন্ত্র প্রস্তুতকারকরা। প্রদর্শনীর বিশাল আকৃতির যন্ত্রগুলো বলছে তাদের চাহিদা আছে বড় দেশগুলোয়।

আর উদ্যোক্তারা বলছেন, তাদের আন্তরিক সুদৃষ্টি আছে উন্নয়নশীল দেশগুলোর দিকে।

চায়না এগ্রিকালচারাল ম্যাকানাইজেশন এসোসিয়েশন’র প্রেসিডেন্ট লিউ জিয়ান জানান, কৃষি যন্ত্রের উন্নয়নের সাথে সাথে এই প্রদর্শনীর পরিধি ও চাহিদা বাড়ছে। কৃষির সকল খাতে বিশেষ করে প্রাণী খাতে বাগান ব্যবস্থাপনার জন্য নতুন নতুন অনেক যন্ত্র আসছে।

চায়না এগ্রিকালচারাল মেশিনারিজ ডিস্ট্রিবিউটরস এসোসিয়েশন’র ডেপুটি সেক্রেটারি রু উই বলেন, এ বিশাল আয়োজনের সবচেয়ে বড় সাফল্য হলো বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের কৃষি যন্ত্রের ব্যবসায়ী ও আমদানীকারীদের সঙ্গে গণমাধ্যমকে যুক্ত করতে পেরেছি।

বিস্তারিত দেখুন ভিডিও রিপোর্টে: