চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বুফনকে ছাড়িয়ে রামোস, বিশ্বরেকর্ডের হাতছানি

মাঠে নেমেই দারুণ এক কীর্তি গড়েছেন, পেছনে ফেলেছেন জিয়ানলুইজি বুফনকে। সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে খেলতে নেমে সার্জিও রামোস হয়ে গেছেন ইউরোপের সবচেয়ে বেশি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলা ফুটবলার।

গত বুধবার বুফনকে ছুঁয়েছিলেন রামোস। ইতালির জার্সিতে কিংবদন্তি গোলরক্ষকের ম্যাচ খেলার রেকর্ড ছিল ১৭৬টি। নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে বদলি হিসেবে নেমে সেই রেকর্ডে ভাগ বসান স্পেন অধিনায়ক।

বিজ্ঞাপন

সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে শনিবার রাতে খেলেছেন শুরু থেকেই। মাঠে নামা মাত্রই রামোসের আন্তর্জাতিক ম্যাচ সংখ্যা হয়ে গেছে ১৭৭। একজন ইউরোপিয়ান ফুটবলারের সর্বোচ্চ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার রেকর্ড এখন তার দখলে।

ইউরোপিয়ান রেকর্ড ছুঁয়েছেন, স্প্যানিশ ডিফেন্ডার রামোসকে ডাকছে বিশ্বরেকর্ডও। সর্বোচ্চ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলার রেকর্ডটি মিশরের আহমেদ হাসানের দখলে। ছুঁতে হলে আরও আটবার স্পেনের জার্সি পরতে হবে রিয়াল মাদ্রিদ অধিনায়ককে।

বিজ্ঞাপন

স্পেনের হয়ে ২০১০ বিশ্বকাপ, ২০০৮ এবং ২০১২ ইউরো জিতেছেন রামোস। ডিফেন্ডার হয়েও তার গোলসংখ্যা ২৩টি। কিংবদন্তি আলফ্রেড ডি স্টেফানোর সঙ্গে যৌথভাবে স্পেনের অষ্টম সর্বোচ্চ গোলদাতা তিনি।

অবশ্য শনিবারই ডি স্টেফানোকে ছাড়িয়ে যাওয়ার সুযোগ ছিল রামোসের। সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে দুবার পেনাল্টি নিয়েছিলেন, প্রতিবারই করেছেন মিস। তার ব্যর্থতায় ১-১ গোলে ড্র করেছে স্পেন।

সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে জিততে পারলে রামোসের আন্তর্জাতিক ম্যাচ জয়ের সংখ্যা দাঁড়াত ১৩০টিতে। সেটা হয়নি। অবশ্য স্পেনের হয়ে রামোসের চেয়ে বেশি ম্যাচ জেতার কীর্তি নেই কারও।

২০০৫ সালে চিলির বিপক্ষে স্পেনের জার্সি গায়ে অভিষেক হয় রামোসের। বয়স ২৬-এর আগেই গড়েন শত ম্যাচের কীর্তি। অন্যদিকে, ১৯৯৭ সালে অভিষিক্ত বুফন ২০১৮ সালে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে খেলেছেন ইতালির হয়ে শেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ।