চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বুধবারের পরে কমতে পারে শীত

কয়েক দিন বিরতি দিয়ে সারাদেশে আবারো শুরু হয়েছে শৈত্যপ্রবাহ। তীব্র শীতের এই ভোগান্তি বুধবার থেকে কমবে বলে আশা প্রকাশ করেছে আবহাওয়া অফিস।

তবে সপ্তাহখানেক তাপমাত্রা কিছুটা স্বাভাবিক থাকার পর আবার এই মাসেই আবার শৈত্যপ্রবাহের শঙ্কার জানান দিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

আবহাওয়াবিদ ওমর ফারুক চ্যানেল আই অনলাইন-কে বলেন: ‘সারাদেশে শৈত্যপ্রবাহ আজ থেকে আবারো শুরু হয়েছে। শীতের এই প্রকোপ থাকবে কমপক্ষে ১৪ জানুয়ারি পর্যন্ত। এরপর থেকে তাপমাত্রা বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। প্রায় সপ্তাহখানেক এমন আবহাওয়া বিরাজ করার পর আবারও শৈত্যপ্রবাহের শঙ্কা থাকতে পারে।’

তীব্র শীতে ভোগান্তিতে পড়েছে নিম্ন আয়ের মানুষেরা। হাসপাতালগুলোতে বেড়েছে শীতজনিত রোগে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা।

সরকারি হিসাব অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় ৫ হাজারের বেশি মানুষ শীতজনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছে।

বিজ্ঞাপন

আবহাওয়া অফিস জানায়, সারাদেশে দিন এবং রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে। মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত মাঝারী থেকে ঘন কুয়াশা পড়তে পারে, তা দেশের কোথাও কোথাও বিকাল পর্যন্ত অব্যাহত থাকতে পারে।

রোববার সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে আরো বলা হয়, অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে।

আজ দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে রংপুর বিভাগের রাজারহাটে ৯ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস, রাজশাহী বিভাগের ইশ্বরদীতে ৯ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস, রংপুর বিভাগের তেঁতুলিয়ায় ৯ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

ঢাকায় আজ সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৩ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং সর্বোচ্চ ১৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে।

আবহাওয়ার সংক্ষিপ্তসারে বলা হয়, উপমহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ বাংলাদেশের পশ্চিমাঞ্চল ও তৎসংগ্ন এলাকা পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে।।

বিজ্ঞাপন