চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বিশ্ব ভ্রমণে যাচ্ছে ‘মায়াবতী’!

গেল সেপ্টেম্বরের ১৩ তারিখে দেশের প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছিলো অরুণ চৌধুরীর দ্বিতীয় ছবি ‘মায়াবতী’। তিশা ও ইয়াশ রোহান অভিনীত ছবি মুক্তির একমাস পেরিয়ে গেলেও রাজধানীসহ দেশের একাধিক প্রেক্ষাগৃহে ছবিটি এখনো চলছে। এরইমধ্যে জানা গেল আরো একটি আনন্দ সংবাদ।

‘মায়াবতী’র প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান আনোয়ার আজাদ ফিল্মস-এর কর্ণধার কানাডা প্রবাসী আনোয়ার আজাদ চ্যানেল আই অনলাইনকে জানালেন, ছবিটি এখন বিশ্ব ভ্রমণে ব্যস্ত। চলতি মাসেই শুরু হচ্ছে সেই জার্নি!

বিজ্ঞাপন

তিনি জানান, ২৭ অক্টোবর মায়াবতী যাচ্ছে অস্ট্রেলিয়ায়। সেখানে একাধিক শোয়ের আয়োজন করা হয়েছে। ইতোমধ্যে অগ্রীম টিকেট বিক্রিও শেষ হয়েছে। বিশেষ করে সিডনিতে সব টিকিট বিক্রি শেষ।

তিনি জানান, বাংলাদেশের মানুষের মধ্যে ‘মায়াবতী’ ছবিটি বেশ হাইপ তৈরী করেছে। ফলে সেই জোয়ার পৌঁছে গেছে বিশ্বের বিভিন্ন জায়গা থাকা বাংলা ভাষাভাষি মানুষের কাছেও। বাঙালিরা যে যেখানে আছেন, সেখান থেকেই ছবিটি দেখতে আগ্রহ জানিয়েছেন। কিন্তু সব জায়গায়তো আমাদের যাওয়া সম্ভব নয়। তবে অস্ট্রেলিয়ার পর আমরা কানাডায় কয়েকটি শো করবো।

আনোয়ার আজাদ বলেন, আগামি নভেম্বরের ১০ তারিখে টরেন্টোতে দেখাবো ‘মায়াবতী’। উডসাইড সিনেমা হলে দুটি শো করবো। ২৮০টি সিটের থিয়েটার এটি। দুপুর ১টায় একটি শো এবং বিকাল ৪টায় আরেকটি শো। এরপর কানাডার অন্য স্টেটগুলোতেও ছবিটি চালানোর পরিকল্পনা আছে।

প্রযোজক আরো বলেন, কানাডার পর আমেরিকায় দেখানো হবে ‘মায়াবতী’। এরপর আমাদের টার্গেট সুইডেন ও ইংল্যান্ড। সেখানে অনেকেই ছবিটির জন্য যোগাযোগ করেছেন।

‘মায়াবতী’র সফলতায় খুশি হয়ে নাকি নির্মাতা অরুণ চৌধুরীকে দিয়ে আরো একটি সিনেমা নির্মাণ করতে যাচ্ছেন?-এমন প্রশ্নে এই প্রযোজক বলেন: হ্যাঁ, ‘মায়াবতী’ নিয়ে আমরা বেশ আনন্দিত। চলতি বছর হয়তো বিভিন্ন দেশে এই ছবিটি নিয়ে দৌড়ঝাঁপে সময় দিতে হবে। এরপরই আমরা নতুন প্রজেক্ট ঘোষণা করবো।

নারী পাচার ও যৌনপল্লীর গল্প নিয়ে নিজের কাহিনী ও চিত্রনাট্যে মায়াবতী নির্মাণ করেছেন পরিচালক অরুণ চৌধুরী। ছবির কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করছেন নুসরাত ইমরোজ তিশা। এছাড়াও ছবিতে আছেন ইয়াশ রোহান, ফলজুর রহমান বাবু, আফরোজা বানু, আগুন, রাইসুল ইসলাম আসাদ, দিলারা জামান, মামুনুর রশীদ, ওয়াহিদা মল্লিক জলি প্রমুখ।

Bellow Post-Green View