চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বিশ্ব অর্থনৈতিক উন্নয়ন সূচকে আরও ভালোর পথে বাংলাদেশ

সবগুলো দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ৪১

বিশ্ব অর্থনৈতিক উন্নয়নের সূচকে সবগুলো দেশের মধ্যে অতীতের চেয়ে নতুন বছরে ভালো অবস্থানে আছে বাংলাদেশ। সার্বিক বিশ্লেষণে ২০৩৩ সালে দেশটি এর চেয়েও অনেক ওপরে পৌঁছে যাবে।

এমনই পূর্বাভাস দিয়েছে বিশ্বের ১৯৩ টি দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা নিয়ে গবেষণা সূচক ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক লিগ টেবিল (ডব্লিউইএলটি)। ২০১৯ সালের এই তালিকা অনুসারে, এ বছর সবগুলো দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ৪১। গত বছরের সূচকে যা ছিল আরেকটু পিছিয়ে ৪৩তম অবস্থানে।

একই তালিকায় বলা হয়েছে, অর্থনীতির ধারা এভাবে চলতে থাকলে ২০৩৩ সাল নাগাদ বাংলাদেশ পৌঁছে যাবে তালিকার ২৪ নম্বর দেশের জায়গায়।

২০১৯ ও ২০৩৩-এর মাঝে ২০২৩ এবং ২০২৮ সালের সম্ভাব্য উন্নয়ন সূচকও উল্লেখ করা হয়েছে ডব্লিউইএলটি’তে, যেখানে বাংলাদেশের অবস্থান যথাক্রমে ৩৬ ও ২৭। অর্থাৎ বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অবস্থা সময়ের সাথে সাথে  উন্নয়নের পথেই এগোচ্ছে।

Advertisement

ডব্লিউইএলটি’র প্রতিবেদনের ভবিষ্যদ্বাণী, ২০১৮ থেকে ২০৩৩ সালে বাংলাদেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধি গড়ে অন্তত ৭ শতাংশ থাকবে। এ কারণেই দেশটি ২০১৮ থেকে ১৯ অবস্থান এগিয়ে ২০৩৩-এ ২৪ তম হয়ে যাবে।

চার্টার্ড ইনস্টিটিউট অব বিল্ডিং-এর অর্থায়নে ‘ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক লিগ টেবিল (ডব্লিউইএলটি), ২০১৯’ প্রতিবেদনটি যৌথভাবে প্রকাশ করেছে সেন্টার ফর ইকোনমিকস অ্যান্ড বিজনেস রিসার্চ এবং গ্লোবাল কনস্ট্রাকশন পার্সপেক্টিভস।

এতে ২০০৩ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত তথ্য যোগ করার পাশাপাশি এসব তথ্যের আলোকে এবং ভবিষ্যৎ সম্ভাব্যতা বিচার করে ২০৩৩ সাল পর্যন্ত এ পূর্বাভাসমূলক প্রতিবেদন ও তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে।

তালিকায় ২০১৯ সালে যুক্তরাষ্ট্র, চীন ও জাপান যথাক্রমে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় অবস্থানে থাকবে বলে উল্লেখ করা হলেও দেখানো হয়েছে, ২০৩৩ নাগাদ এই শীর্ষ তিন অবস্থানে থাকবে যথাক্রমে চীন, যুক্তরাষ্ট্র ও ভারত।

ডব্লিউইএলটি অনুসারে, ২০১৮ থেকে ২০৩৩ পর্যন্ত টানা সর্বশেষ অবস্থানে থাকছে টুভালু।