চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বিশ্বকাপের দেশে খেলছে আরও একটি বাংলাদেশ দল

বাছাইপর্বের লড়াই-রোমাঞ্চ শেষে আরব আমিরাতে টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপের মূলপর্বে জায়গা করে নিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। সামনের অভিযাত্রা সুপার টুয়েলভ পর্বের। একই সময়ে ব্যাট-বলের বিশ্বযজ্ঞ চলা দেশটিতে খেলবে আরও একটি টাইগার দল। সেটি ফুটবলে। জাতীয় পর্যায়ের না হলেও যা কম আকর্ষণের নয়! ফিফকো ওয়ার্ল্ড কর্পোরেট চ্যাম্পিয়ন্স কাপ ফুটবলে যে প্রথমবারের মতো সদর্পে প্রতিনিধিত্ব করছে বাংলাদেশও।

ফিফকো ওয়ার্ল্ড কর্পোরেট চ্যাম্পিয়ন্স কাপ ফুটবলের আয়োজন হয় বেশ জৌলুসের সাথে। ২০১৮ সালে কানাডার মন্ট্রিয়লে এবং ২০১৯ সালে মোনাকোতে বৈশ্বিক আসরটি অনুষ্ঠিত হয়েছিল। এবার হচ্ছে আরব আমিরাতে।

বাংলাদেশ থেকে আমিরাতের টুর্নামেন্টে প্রতিনিধিত্ব করছে ‘বানদো ডিজাইন লিমিটেড’। বিজিএমইএ কাপ-২০২০ আসরের শিরোপা জেতার সুবাদে ওয়ার্ল্ড কর্পোরেট চ্যাম্পিয়ন্স কাপে অংশগ্রহণের গৌরব অর্জন করেছে বানদো ডিজাইন। বাংলাদেশের প্রথম দল হিসেবে অংশ নিচ্ছে লায়লা গ্রুপের প্রতিষ্ঠানটি।

আয়োজক ইন্টারন্যাশনাল ফেডারেশন অব কর্পোরেট ফুটবল (ফিফকো), যাদের প্রধান কার্যালয় কানাডায়। বর্তমানে সদস্য দেশ সংখ্যা ৬০টি।

টুর্নামেন্টের পর্দা উঠছে আজ, ২২ অক্টোবর। হবে বর্ণাঢ্য জমকালো উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। ২৪ অক্টোবর বাংলাদেশ সময় বিকাল ৩টায় গ্র্যান্ডফিনালের মধ্য দিয়ে সমাপ্তি হবে। খেলা হবে ফুটসালের নিয়মে। একেক দলে থাকবেন ৫ জন করে খেলোয়াড়।

বিজ্ঞাপন

স্পোর্টস মিডিয়া কোম্পানি ‘স্পোর্টসফেভার৩৬০’ টুর্নামেন্টের লাইভ কভারেজ দেবে। ফিফকোর ফেসবুক পেজ ও ইউটিউব চ্যানেল ‘ফিফকোটিভি’তে হবে সম্প্রচার।

আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টটিতে অংশগ্রহণের জন্য বিজিএমইএ’র সাবেক সভাপতি ও লায়লা গ্রুপের চেয়ারম্যান সিদ্দিকুর রহমান এবং বিজিএমইএ’র ডিরেক্টর ও শেলটেকের ম্যানেজিং ডিরেক্টর তানভির আহমেদ যৌথভাবে বাংলাদেশ দলের পৃষ্ঠপোষকতা করছেন।

ফিফকোর প্রেসিডেন্ট আলবার্ট জুবিলি প্রথমবারের মতো বড় আসরে বাংলাদেশের কর্পোরেট ফুটবল দল পেয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন। দুবাই আসরটির সার্বিক সহযোগিতায় রয়েছে ‘দুবাই স্পোর্টস কাউন্সিল এন্ড ট্যুরিজম দুবাই’র মতো সংস্থা। স্থানীয় আয়োজক হিসেবে রয়েছে ‘হাই ফাইভ ইভেন্টস’।

দেশের কর্পোরেট ফুটবলের অন্যতম সফল দল বানদো ডিজাইন। যারা বাংলাদেশ ও ভারতে অনুষ্ঠিত অনেক আসরের শিরোপা জিতেছে। বানদো ফুটবল দলের কর্ণধার সামিরা আলম, নেতৃত্বে আছেন বাংলাদেশের কর্পোরেট টুর্নামেন্টের ইতিহাসে সর্বোচ্চ গোলদাতা ইমরানুর রহমান, যিনি ১৮৯টি অফিসিয়াল ম্যাচে ৩৭৭ গোল করেছেন।

বানদোর দলে আছেন মোবারক, রাজিব, পিয়াস ও মেহতাবের মতো আলো ছড়ানো কর্পোরেট ফুটবলার। দলের শক্তি বাড়াতে আছেন শাকিল, মামুন এবং মৃদুলদের মতো তারকা কর্পোরেট খেলোয়াড়রা।

বিজ্ঞাপন