চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বিধ্বস্ত হওয়ার আগেও নিয়মিত উড়ত উড়োজাহাজটি

বিধ্বস্ত হওয়ার আগেও সঠিক পরীক্ষা-নিরীক্ষা মধ্যে থেকে বাণিজ্যিকভাবে উড়েছিল ইন্দোনেশিয়ার শ্রীবিজয়া এয়ারের বোয়িং ৭৩৭-৫০০ উড়োজাহাজটি।

মঙ্গলবার অনুসন্ধানের পর এমনটাই জানিয়েছে দেশটির কর্তৃপক্ষ।

বিবিসির প্রতিবেদনে জানা যায়, গত বছরের মার্চ থেকে ডিসেম্বরে নিয়মিত উড়োজাহাজটি চলাচল করেছিল। গত ১৮ থেকে ২২ ডিসেম্বর পর্যন্ত ফ্লাইটের সকল তথ্য রয়েছে কর্তৃপক্ষের কাছে।

প্রাথমিক অনুসন্ধানে দেখা গেছে, উড়োজাহাজটি বিধ্বস্ত হওয়ার আগেও কার্যকর এবং অক্ষত ছিল। তবে এই দুর্ঘটনার সঠিক কারণ এখনও জানা যায়নি।

গত শনিবার বিকালে শ্রীবিজয়া এয়ারের একটি অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট রাজধানী জাকার্তা থেকে ওয়েস্ট কালিমান্তান প্রদেশের রাজধানী পনতিয়ানাক রওনা হওয়ার চার মিনিটের মধ্যে রাডার থেকে হারিয়ে যায়।

পরে জানা যায়, বিমানবন্দর থেকে ২০ কিলোমিটার দূরে লাকি দ্বীপের কাছে সাগরে এটি বিধ্বস্ত হয়েছে। বিমানটিতে ৬২ আরোহী ছিলেন। যাদের বেঁচে থাকার আশা আর নেই বললেই চলে।

উড়োজাহাজটি যেখানে বিধ্বস্ত হয়েছে, ওই এলাকায় সাগরের পানি থেকে মানবদেহের খণ্ডাংশ উদ্ধার হচ্ছে। কিন্তু সেগুলো থেকে কারও পরিচয় শনাক্ত করা সম্ভব হচ্ছে না। এ জন্য ডিএনএ পরীক্ষার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

উড়োজাহাজের যাত্রী কারা তা এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে জানা না গেলেও পরিবার ও বন্ধুবান্ধবদের কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে গণমাধ্যম কয়েকজনের পরিচয় তুলে ধরেছে।