চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বিদেশী কর্মী নেয়া বন্ধ করায় ৫ লাখ মার্কিনীর চাকরির সুযোগ

অস্থায়ীভাবে বিদেশী কর্মী নেয়া স্থগিত করার ফলে ৫ লাখ ২৫ হাজার মার্কিন নাগরিকের কর্মসংস্থানের সুযোগ হবে বলে জানিয়েছে হোয়াইট হাউজ। ট্রাম্প প্রশাসনের এক সিনিয়র কর্মকর্তা জানিয়েছেন, এ চাকরিগুলোতে বিদেশী তথ্য প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা সুযোগ পেতেন বেশী। বিদেশী কর্মীদের জন্য নতুন ভিসা ইস্যু করায় যে নিষেধাজ্ঞা সেটা বলবত রাখার ঘোষণার পর হোয়াইট হাউজ থেকে এ তথ্য জানানো হয়।

এইচ-ওয়ানবি, এইচ-ফোর, এইচ-টুবি, জে এবং এল ওয়ান ভিসা ইস্যু এবছরের শেষ নাগাদ স্থগিত থাকছে। ভারতীয় নাগরিকরা ‘এইচ-ওয়ানবি’ এবং ‘এল ওয়ান’ ভিসায় সবচেয়ে বেশী সুযোগ পেতেন। এক সংবাদ সম্মেলনে মার্কিন প্রশাসনের ওই কর্মকর্তা বলেন, “করোনাভাইরাসের কারণে যুক্তরাষ্টের অর্থনীতি বড় ধাক্কা খেয়েছে। ত্বরিৎ গতিতে এ ধাক্কা পুষিয়ে নিয়ে মার্কিন নাগরিকদের বেশী বেশী চাকরির সুযোগ করে দিতে বিদেশী কর্মীদের ভিসা স্থগিত রাখা হয়েছে।”

বিজ্ঞাপন

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের এই সিদ্ধান্তের ফলে করোনাকালে যেসব মার্কিন নাগরিকরা কাজ হারিয়েছেন তারা নতুন চাকরিতে আগে সুযোগ পাবেন। বিদেশী কর্মীদের সুযোগ আসবে তাদের পরে।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

সংবাদ সম্মেলনে ওই কর্মকর্তা আরো বলেন, যেসব মার্কিন নাগরিক প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের পাশে আছে তাদের কথা ভেবেই চাকরির বাজার মার্কিনীদের জন্য সংরক্ষণের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। বিভিন্ন জরিপে দেখা যাচ্ছে বিদেশী নাগরিকদের অভিবাসন স্থগিতের সিদ্ধান্তে মার্কিনীদের সমর্থন রয়েছে।

ওয়াশিটন পোস্ট এবং ম্যারিল্যান্ড ইউনিভারসিটি পরিচালিত এক জরিপে দেখা গেছে ভিসা স্থগিতের সিদ্ধান্তকে সমর্থ করে ৬৫ ভাগ মার্কিন নাগরিক।এর ৬১ ভাগই অপ্রাপ্তবয়স্ক নাগরিক।

পিউ রিসার্স সেন্টার এর এক জারিপে দেখা যাচ্ছে, ৮১ শতাংশ নাগরিক মনে করেন করোনাপরবর্তী সময়ে গণহারে অভিবাসন মার্কিন যুক্তরাষ্টের জন্য বড় হুমকি হয়ে দেখা দেবে।

হোয়াইট হাউজ জানিয়েছেন, বিদেশী কর্মীদের ভিসা স্থাগিতের সিদ্ধান্তে ডেমোক্রাট ও লিবারেল  ডেমোক্রাটদেরও সমর্থন রয়েছে।