চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বিটিভির জন্মদিনে চ্যানেল আই এর শ্রদ্ধা

আজ ৫৪ পেরিয়ে ৫৫ বছরে পা রেখেছে বাংলাদেশ টেলিভিশন। চ্যানেল আই প্রতিবছর ২৫ ডিসেম্বর বিটিভির জন্মদিনে নিজস্ব আঙিনায় আয়োজন করে বিশেষ অনুষ্ঠানের। এবারও তার ব্যতিক্রম ছিল না। চ্যানেল আই-এর চেতনা চত্বরে ‘গানে গানে সকাল শুরু’র বিশেষ পর্ব সাজানো হয়েছিল বিটিভির জন্মদিনকে ঘিরে।

শীতের সুন্দর সকালে এই আয়োজনে এবারও হাজির হয়েছিলেন বিটিভি যুগে আলো ছড়ানো বর্তমানে দেশের রেডিও, টেলিভিশনসহ সাংস্কৃতিক অঙ্গনে নেতৃত্বদানকারী বিশিষ্টজনেরা।

চ্যানেল আই-এর চেতনা চত্বরে রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা ও তার সহযোগী শিল্পীদের কণ্ঠে সমবেত সঙ্গীতের মাধ্যমে বিটিভির জন্মদিন পালনের এই অনিন্দ্য সুন্দর অনুষ্ঠানটি শুরু হয়। স্বাগত বক্তব্য রাখেন চ্যানেল আই-এর পরিচালক ও বার্তা প্রধান শাইখ সিরাজ। তিনি বলেন, ৫৫ বছর আগে আজকের এই দিনে ভূমিষ্ঠ হয়েছিল বিটিভি। বাঙ্গালির হাজার বছরের কৃষ্টি এই বিটিভিতে প্রকাশিত হয়েছে। শিল্প-সংস্কৃতির বিকাশে বিটিভি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে।

বিজ্ঞাপন

গান ও বিটিভি যুগের স্মৃতিচারণার মাধ্যমে অনুষ্ঠান এগিয়ে যেতে থাকে। দীর্ঘ দিনের বন্ধু ও সহকর্মীকে কাছে পেয়ে অনেক তাদের আনন্দ প্রকাশ করেন। একে একে বক্তব্য রাখেন পরিচালক মুকিত মজুমদার বাবু, আব্দুল মালিক, শফিকুর রহমান, কেরামত মওলা, কামরুন্নেসা হাসান, হারুন অর রশীদ, জহিরুদ্দিন মামুন, সৈয়দ হাসান ইমাম, মহিউদ্দিন ফারুক, আজাদ রহমান, সালাউদ্দিন আহমেদ, আলী ইমাম, সাইফুল আলম, মুস্তাফা মনোয়ার, সৈয়দ আব্দুল হাদী, নাসিরুদ্দিন আহমেদ, শাহিদা আরবী, খায়রুল আলম সবুজ, কে এস ফিরোজ, গাজী আব্দুল হাকিম, রেজাউল করিম,মনোজ সেনগুপ্ত লায়লা হক এবং ঝুনা চৌধুরী।

অনুষ্ঠান শেষে রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা ও তার সহযোগী শিল্পীদের সঙ্গে ধনধান্য পুস্পে ভরা গানে যোগ দেন সৈয়দ আব্দুল হাদী এবং দিনাত জাহান মুন্নী। অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেছেন দিলরুবা সাথী। অনুষ্ঠানটি সরাসরি সম্প্রচার করেছে চ্যানেল আই এবং বাংলাদেশ টেলিভিশন।

বিজ্ঞাপন