চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বিচারিক কার্যক্রমে ফিরছে দেশের সব আদালত

দেশে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধির প্রেক্ষাপটে সরকার ঘোষিত বিধিনিষেধ শেষে বিচারিক কার্যক্রমে ফিরছে দেশের সব আদালত।

গত ৮ আগস্ট থেকে দেশের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে ভার্চুয়ালি বিচারকাজ শুরুর পর আজ থেকে হাইকোর্টের সবগুলো (৫৩ টি) বেঞ্চে ভার্চুয়াল মাধ্যমে বিচারিক কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এছাড়া ভার্চুয়ালি অথবা শারীরিক উপস্থিতিতে দেশের সব অধস্তন আদালত ও ট্রাইব্যুনালে সাক্ষ্যগ্রহণসহ অনতিবিলম্বে স্বাভাবিক বিচার কাজ পরিচালনার সিদ্ধান্ত দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন।

বিজ্ঞাপন

প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের আদেশক্রমে বুধবার সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল মো. আলী আকবর স্বাক্ষরিত
এ সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ‘দেশের সকল অধস্তন দেওয়ানি ও ফৌজদারি আদালত এবং ট্রাইব্যুনালে স্বাভাবিক বিচার কার্যক্রম পরিচালিত হবে। দেওয়ানি ও ফৌজদারি মামলায় বিচারক প্রযোজ্য ক্ষেত্রে শারীরিক উপস্থিতিতে বা ২০২০ সালের আদালত কর্তৃক তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার আইন এবং এই আদালতের (হাইকোর্ট) জারি করা বিজ্ঞপ্তি অনুসরণ করে ভার্চুয়াল উপস্থিতির মাধ্যমে সব ধরনের বিচার কার্যক্রম পরিচালনা করবেন। তবে বিচারক প্রয়োজনীয় সুরক্ষামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করে শারীরিক উপস্থিতিতে সাক্ষ্য গ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন করবেন। স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালন পূর্বক সামাজিক ও শারীরিক দূরত্ব নিশ্চিত এবং সুরক্ষামূলক ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে জেলা ও দায়রা জজ বা মহানগর দায়রা জজ এবং চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট বা চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সংশ্লিষ্ট জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের সঙ্গে আলোচনা করে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন। আর ওই আদেশ পালনে কোনো সমস্যা দেখা দিলে প্রয়োজনে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশনা চাওয়া যাবে। এছাড়া এই আদেশ অনতিবিলম্বে কার্যকর হবে উল্লেখ করে গত ৬ আগস্টের বিজ্ঞপ্তির কার্যকারিতা বাতিলের কথা বলা হয়েছে সুপ্রিম কোর্টের এই বিজ্ঞপ্তিতে।

বিজ্ঞাপন