চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বাড়ি ফিরতে চান মেলানিয়া

ডোনাল্ড ট্রাম্প সম্প্রতি শেষ হওয়া যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জো বাইডেনের জয় অস্বীকার করলেও হোয়াইট হাউস ছেড়ে বাড়ি ফিরতে চান বলে জানিয়েছেন ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্প।

এক সূত্রের বরাতে জানিয়েছে সংবাদ মাধ্যম এনডিটিভি।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

ওই সূত্রের বরাতে বলা হয়, যদিও মেলানিয়া ট্রাম্প মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের নির্বাচনী অনুভূতির সাথে প্রকাশ্যে সম্মতি প্রকাশ করেছেন। কিন্তু হোয়াইট হাউস পরবর্তী সময়ে জীবনযাপনের জন্য যে বাজেট এবং কর্মচারীদের বরাদ্দ দেয়া হবে তা দিয়ে কী কী পাওয়া যাবে তা জানতে এক দূতকে দায়িত্ব দিয়েছেন মেলানিয়া ট্রাম্প।

মেলানিয়ার বিষয়ে ওই সূত্রটি জানিয়েছে, তিনি কেবল বাড়ি যেতে চান। তবে ট্রাম্প ২০২৪ সালের নির্বাচনে যে প্রতিদ্বন্দ্বীতার কথা বলেছেন সে বিষয়ে তিনি বলেন, বিষয়টি মোটেও ভালো হবে না।

বিজ্ঞাপন

যুক্তরাষ্ট্রের সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, বিদায়ী রাষ্ট্রপতি ও কমান্ডার ইন চিফের জন্য দেয়া অফিস এবং অফিসের স্টাফের ব্যয়ের বাজেট এবং ভ্রমণের ব্যবস্থা থাকলেও দেশটির ফার্স্ট লেডির জন্য সরকার থেকে কোনো বরাদ্দ নেই। কেবল স্বামী মারা গেলে এক বছরের পেনশন হিসেবে ২০ হাজার মার্কিন ডলার দেয়া হয় ফার্স্ট লেডিকে।

মেলানিয়া ফার্স্ট লেডি হিসেবে তার ভূমিকার দিকে মনোনিবেশ করেছেন। সোমবার তিনি সাম্প্রতিক সময়ের তার প্রচেষ্টার প্রকাশ হিসেবে হোয়াইট হাউসের টেনিস প্যাভিলিয়নের কাজের সমাপ্ত ঘোষণা করেছেন। তিনি সম্প্রতি সদ্য সংস্কার করা রোজ গার্ডেনে একটি নতুন শিল্পকর্ম উন্মোচন করেছেন। তার অফিস এই বছরের ক্রিসমাস সজ্জা প্রকাশ করেছে। একজন মা, স্ত্রী এবং দেশের ফার্স্ট লেডি হিসেবে তার দায়িত্বের শিডিউল পূর্ণ রয়েছে বলে সিএনএনকে জানিয়েছে তার চিফ অফ স্টাফ স্টিফানি গ্রিশাম।

মেলানিয়া ট্রাম্প এখন ‘মার-এ-লাগো’তে তার ১৪ বছরের ছেলে ব্যারনকে নিয়ে ফিরে যেতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

মেলানিয়া ইতিমধ্যে নিউইয়র্ক সিটির ট্রাম্প টাওয়ার এবং হোয়াইট হাউস থেকে তার ব্যক্তিগত সকল জিনিসপত্র মার-এ-লাগোতে সরিয়ে ফেলেছেন।

বিজ্ঞাপন