চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বাবা হারানোর দিনেও ব্যাট-প্যাড নিয়ে মাঠে ছিলেন মোসাদ্দেক সৈকত

সদ্য আফগানিস্তানের বিপক্ষে অভিষিক্ত মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পা রাখার প্রথম দিনেই মেলে ধরেছেন নিজেকে। টাইগার ব্যাটিং লাইন আপে আসা যাওয়ার মধ্যে স্রোতের বিপরীতে বুক চিতিয়ে
দাঁড়িয়ে দলকে পাইয়ে দিয়েছেন লড়াইয়ের পুঁজি।

মাত্র ২০ বছর বয়সেই ক্রিকেট
জ্ঞানের যে পরিপক্কতা দেখিয়েছেন ময়মনসিংহ থেকে ওঠে আসা এ ব্যাটসম্যান তা
অনেকের কাছে অবাক করার হলেও; এতে মোটেও অবাক নন মোসাদ্দেকের প্রথম জীবনের
কোচ গোলাম কিবরিয়া।

তিনি মনে করেন যে ছেলে ওতোটুকু বয়সে বাবা হারানোর শোক
না কাটতেই মৃত্যুর দিন বিকালেই ব্যাট-প্যাড নিয়ে মাঠে নেমে যেতে পারে তার
পক্ষে অসম্ভব কিছুই নয়।

মোসাদ্দেকের সাফল্যে অসম্ভব খুশি গোলাম কিবরিয়া চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন: আজ সকালেও সে আমাকে ফোন করেছিলো। দোয়া চাইছিলো। আমি তাকে বলেছি, খেলে যা। অন্য কোনো দিকে মন দেওয়ার দরকার নেই। শুধু বল দেখে ব্যাট চালাবি। আমি জানি তুই ভালো করবি।

আর ভালো করবেই না কেনো। ক্রিকেটের প্রতি সে যতোটা নিবেদিত তাতে করে সাফল্য না পেয়ে পারেই না। আপনি চিন্তা করেন-একটা ছেলে বাবা হারানোর শোক না কাটতেই কখন মাঠে নামতে পারে!

এ প্রসঙ্গে তিনি আরো বলেন: খুব ছোট থাকতেই বাবা হারান মোসাদ্দেক। সকালে দিকে তার বাবা মারা যান আর বিকালেই ব্যাট-প্যাড নিয়ে মাঠে চলে আসে। তাহলে চিন্তা করুন ক্রিকেটের প্রতি কতোটুকু ভালোবাসা থাকলে একটা ছেলে এটা করতে পারে? আমি জানি সে অনেক দূর যাবে।

বিজ্ঞাপন

অবশ্য ওডিআই ক্রিকেটের আগে টি২০ ক্রিকেটের জার্সি গায়ে জড়িয়েছেন। গত জানুয়ারিতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে খুলনার মাঠে প্রথমবারে মতো ক্রিকেটের ক্ষুদ্র সংস্করণে মাঠে নামেন তিনি। অবশ্য গত কয়েক মৌসুম ধরেই ঘরোয়া ক্রিকেটে নিজের জাত চেনাচ্ছেন তিনি।

ঘরোয়া লীগে মোসাদ্দেকের দারুণ পারফরম্যান্সের জন্যই জাতীয় দলে তার ডাক পাওয়া। লীগের প্রথম রাউন্ডে সেঞ্চুরির পর দ্বিতীয় রাউন্ডে ডাবল সেঞ্চুরি করেছেন এই ব্যাটসম্যান। প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেট ১২ ম্যাচে এটা মোসাদ্দেকের তৃতীয় ডাবল সেঞ্চুরি। বাংলাদেশের আর কোন ব্যাটসম্যানের প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে তিনটি ডাবল সেঞ্চুরি নেই।

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে আবাহনীর জার্সিতে ১৬ ম্যাচে ৬২২ রান করেছেন পাঁচ ফিফটিতে।

এছাড়া লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে মোসাদ্দেক ৩৯ ম্যাচে এক সেঞ্চুরি ও নয় হাফসেঞ্চুরিতে করেছেন ১২৯১ রান। বল হাতে নিয়েছেন ২০ উইকেট।

ময়মনসিংহের ছেলে মোসাদ্দেক প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে ১৮টি ম্যাচ খেলে সংগ্রহ করেছেন ১৯৮৫ রান। তার ব্যাটিং গড় ৭০.৮৯। স্ট্রাইক রেট ৬৯.০৯। সেঞ্চুরি করেছেন সাতটি, হাফ সেঞ্চুরি করেছেন ছয়টি। বল হাতে নিয়েছেন ১৬ উইকেট।

মোসাদ্দেকের তিন ভাইয়ের মধ্যে তিনজনই ক্রিকেটের সঙ্গে যুক্ত। দেশের মাটিতে হওয়া অনূর্ধ্ব-১৯ যুব বিশ্বকাপে জমজ দুই ছোট ভাইয়ের একজন মোসাব্বেক হোসেন সান নিজ আলোয় চিনিয়েছেন নিজেকে। আরেক ছোট ভাই মুন এবার প্রথম বিভাগে খেলবে। এক কথায় ক্রিকেটের জন্য নিবেদিত পরিবার।

বিজ্ঞাপন