চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বাবা মার বিচ্ছেদ সেরা সিদ্ধান্ত ছিল: সারা আলী খান

বিবাহ বিচ্ছেদের প্রায় ১৬ বছর পার করে ফেলেছেন বলিউড অভিনেত্রী অমৃতা সিং এবং সাইফ আলী খান। কিন্তু তারপরেও প্রায় সময় তাদের বিচ্ছেদ সম্পর্কিত নানা খবর প্রকাশ হয় সংবাদ মাধ্যমগুলোতে। শুধু তাই নয় ইতোপূর্বে বেশ কিছু সংবাদ মাধ্যমের সামনে নিজের বিচ্ছেদের প্রসঙ্গে মুখ খুলেছেন সাইফ নিজেও। যদিও অমৃতাকে এই বিষয়ে সবসময় নিরবই পাওয়া গেছে, তবে তার মেয়ে হিসেবে সারা আলী খানকে দেখা গিয়েছে বাবা-মায়ের (সাইফ-অমৃতা) বিচ্ছেদ প্রসঙ্গে কথা বলতে।

সম্প্রতি সারা একটি টেলিভিশন শোতে বলেন, বাবা-মা একসঙ্গে সুখী ছিলেন না। তাই সেই মুহূর্তে তাদের সেরা সিদ্ধান্ত ছিল আলাদা হয়ে যাওয়া।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

সারার মতে, তাদের জন্য এটা খুব স্বাভাবিক ছিল, কারণ তাদের দুটি বিকল্প ছিল। হয় একই বাড়িতে বাস করতে হবে অথবা বা আলাদা ভাবে বাস করা। তারা প্রত্যেকে তাদের নিজের জীবন নিয়ে সুখী, এবং আমি প্রতিবার দেখা করার সময় একটি ভিন্ন ধরণের ভালবাসা এবং উষ্ণতাও পাই। মূলত এই কারণেই বাবা-মায়ের বিচ্ছেদের সিদ্ধান্তকে আমি সবচেয়ে সেরা  সিদ্ধান্ত হিসেবে মনে করি।

বিজ্ঞাপন

এ প্রসঙ্গে সারা আরও বলেন যে, প্রত্যেক ব্যক্তিরই তার নিজের মত করে সুখে থাকার অধিকার রয়েছে। বাবা-মা নিজেদের জায়গা থেকে খুশি বলে আমরাও খুশী।

১৯৯০ সালে বয়সে প্রায় ১৩ বছরের বড় অমৃতা সিংকে এক প্রকার বাড়ির অমতেই বিয়ে করেছিলেন সাইফ। এ নিয়ে বলিউড পাড়ায়ও কৌতুহলের অন্ত ছিল না। প্রায় ১২ বছর একে অপরের সাথে সংসারও করেছিলেন এই তারকা দম্পতি। কিন্তু ২০০৪ সালে হঠাৎই সামনে আসে তাদের বিচ্ছেদের খবর।

পরে ২০১২ সালে অভিনেত্রী কারিনা কাপুরকে বিয়ে করেন সাইফ। সেই ঘরেও রয়েছে সাইফ-কারিনা দম্পতির দুটি সন্তান। এদিকে আজও অমৃতা বিয়ে করেননি।

বিজ্ঞাপন