চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বাবরি মসজিদ: রায়ের বিরুদ্ধে আপিলের শুনানি আজ

ভারতের ঐতিহাসিক রাম মন্দির ও বাবরি মসজিদ মামলার রায়ের বিরুদ্ধে আপিলের শুনানি শুরু হচ্ছে আজ। প্রধান বিচারপতি শরদ অরবিন্দ বোবদের নেতৃত্বাধীন ৫ সদস্যের একটি বেঞ্চে ১৮টি আবেদনের শুনানি হবে।

তবে উন্মুক্ত আদালতে না হয়ে এর শুনানি হবে বিচারপতিদের চেম্বারে।

এনডিটিভি জানায়, গত ৯ নভেম্বর ওই মামলার রায় ঘোষণার পর তা পুনর্বিবেচনা চেয়ে সুপ্রিম কোর্টে বেশ কিছু আবেদন পড়ে। আবেদনকারী পক্ষের মধ্যে রয়েছে অল ইন্ডিয়া মুসলিমস পারসোনাল ল’ বোর্ড ও নির্মোহি আখড়া।

এছাড়াও রায় পুনর্বিবেচনা চেয়ে আবেদন করেছেন ৪০ অধিকারকর্মী। যদিও তারা মামলার মূল পক্ষ নন।

গত ৯ নভেম্বর অযোধ্যা মামলার রায় ঘোষণা করেন ভারতের সুপ্রিম কোর্ট। সর্বোচ্চ আদালতের নির্দেশে বলা হয়, বিতর্কিত ২.৭৭ একর জমিতে গড়ে উঠবে রাম মন্দির। আর এর পরিবর্তে অযোধ্যার যে কোনো স্থানে মসজিদের জন্য বরাদ্দ করা হবে ৫ একর জমি।

বিজ্ঞাপন

১৯৯১ সালে বাবরি মসজিদ-রামের জন্মভূমি দাবি করা বিতর্কিত জমিসহ ওই ৬৭ একর জমি কেন্দ্রীয় সরকারের হাতে চলে চায়। ৬৭ একর জমিতে অনেক কবর, দরগাসহ অষ্টাদশ শতকের প্রখ্যাত সুফি দরবেশ কাজী কুদওয়ার মাজার রয়েছে বলে দাবি মুসলিমদের। সেখানেই মসজিদ নির্মাণের জন্য জমি চান তারা।

৯ নভেম্বর সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈর নেতৃত্বে ৫ সদস্যের বেঞ্চ ঐতিহাসিক এ মামলার রায় দেন। রায়ে বিতর্কিত ২.৭৭ একর জায়গায় রাম মন্দির তৈরির জন্য তিন মাসের মধ্যে একটি ট্রাস্ট তৈরি করতে বলেন।

আর মসজিদ তৈরির জন্য অযোধ্যার কোনো গুরুত্বপূর্ণ স্থানে সুন্নি বোর্ডকে ৫ একর জমি দেওয়া আদেশ দেন আদালত।

১৯৮০ সাল থেকেই অযোধ্যা ইস্যুটি রাজনৈতিক বিষয় হয়ে উঠেছে। অযোধ্যার এই স্থানটিকে হিন্দুরা রামের জন্মভূমি হিসেবে পবিত্র মনে করে থাকেন।

সেখানেই ছিল ১৬ শতকে প্রতিষ্ঠিত বাবরি মসজিদ। ১৯৯২ সালে তা গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়। সেসময় সাম্প্রদায়িক দাঙ্গায় ২ হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়।

শেয়ার করুন: