চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বাউল শিল্পীদের আর্থিক অনুদান দিয়েছে আওয়ামী লীগের সংস্কৃতি উপ-কমিটি

করোনা মহামারিতে বাউল শিল্পীদের আর্থিক অনুদান দিয়েছে আওয়ামী লীগের সংস্কৃতি বিষয়ক উপ-কমিটি। মোট ১২৩ জন বাউল শিল্পীকে এ আর্থিক অনুদান দেয়া হয়।

আজ বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় রাজধানীর ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের দ্বিতীয় তলায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে এই আর্থিক অনুদান প্রদান কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, সংস্কৃতি ছাড়া কোনো জাতি টিকে থাকতে পারেনা। সংস্কৃতিকে এগিয়ে নিতে হবে। শেখ হাসিনার চেয়ে সংস্কৃতিপ্রেমী প্রধানমন্ত্রী এদেশে কোনোদিন কেউ ছিলেন না। আমাদেরকে নিশ্চিত করতে হবে যে সংস্কৃতি কর্মীরা যেন অভাবগ্রস্ত না থাকেন, সংস্কৃতি-বিষয়ক উপ-কমিটির এজন্য দায়িত্ব রয়েছে। জাতির আত্মা হচ্ছে সংস্কৃতি।

তিনি বলেন, আমাদের এখন দুটি চ্যালেঞ্জ। করোনা এবং সাম্প্রদায়িকতা মোকাবিলা করা। কাক ও কোকিল এক নয়। কোনটা ময়ূর আর কোনটা দাঁড়কাক এটা বুঝতে হবে। সাম্প্রদায়িকতা মোকাবিলা করতে রাজনীতির সঙ্গে সংস্কৃতির মেলবন্ধন আবশ্যক।

বিজ্ঞাপন

সভাপতির বক্তব্যে মঞ্চসারথি আতাউর রহমান বলেন, বঙ্গবন্ধু শিল্পীদের ভালোবাসতেন, আওয়ামী লীগ সবসময় সংস্কৃতিসেবীদের পাশে থাকেন, বঙ্গবন্ধু কন্যাও পিতার ধারাবাহিকতায় সেই ঐতিহ্য লালন করে আসছেন। তিনি অত্যন্ত সংস্কৃতিবান্ধব প্রধানমন্ত্রী। সংস্কৃতির প্রতি দায়বোধ থেকেই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এই মহামারিকালে তাঁদের পাশে দাঁড়িয়েছেন।

আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক ও প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী তর তহবিল থেকে এই করোনাকালে বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষকে আজ পর্যন্ত ১২ কোটি টাকা আর্থিক অনুদান দিয়েছেন। আজকে যেসব শিল্পী সংস্কৃতি কর্মীদের অনুদানের চেক দেওয়া হবে তারা মূলত বাউল শিল্পী।

তিনি আরও বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী করোনা মোকাবেলায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেমোরিয়াল ট্রাস্ট থেকেও সহায়তা করেছেন। এসব শুধু প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নয়, একজন মানবিক মানুষ হিসেবে তিনি সবসময় এই দায়িত্ব পালন করেন, পৃষ্ঠপোষকতা করেন।

মোট ১২৩ জন বাউল শিল্পীকে অনুদান দেওয়া হয়। এরমধ্যে আজকে আশিক দেওয়ান, মতিন দেওয়ান, মো. নাদিম মিয়া, শাহানাজ, জয়নব বিবি, নাসিমা আক্তার, শাকিল, মো. তৈয়ব আলী, মোছা. রুনা খানম প্রমুখকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চেক দেওয়া হয়। অন্যদেরকে চেক পৌঁছে দেওয়া হবে। যাদের নামে বরাদ্দ হয়েছে তাদের মধ্যে কেউ চাইলে ধানমন্ডি আওয়ামী লীগ সভাপতির অফিস থেকেও চেক সংগ্রহ করতে পারবেন।

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক ও সংস্কৃতি-বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য সচিব অসীম কুমার উকিল এমপি অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন। তিনি গত বছর এবং চলতি বছর করোনায় কিংবা অন্যান্য স্বাস্থ্যজটিলতায় সাহিত্য, শিল্প ও সংস্কৃতি অঙ্গনের যে সকল কৃতী মানুষ মারা গেছেন তাদের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করে শোক প্রকাশ করেন। অনুষ্ঠানে সংস্কৃতি-বিষয়ক উপ-কমিটির সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।