চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বাইডেনের শপথ: ক্যাপিটল হিলে ৮ ফুট কাঁটাতারের বেড়া, কয়েক হাজার সৈন্য

যুক্তরাষ্ট্রের নব নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের শপথ অনুষ্ঠানে হামলা হতে পারে বলে সতর্ক করেছিল এফবিআইসহ বিভিন্ন নিরাপত্তা এজেন্সী। তাই শপথ অনুষ্ঠান নির্বিঘ্ন করতে ইতিমধ্যেই নেওয়া হয়েছে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা। সারাদেশ থেকে হাজার হাজার ন্যাশনাল গার্ড সদস্যদের নেওয়া হয়েছে ওয়াশিংটন ডিসিতে।

ক্যাপিটল হিলকে ঘিরে কয়েক স্তরে মোতায়েন করা হয়েছে ন্যাশনাল গার্ড সদস্যদের। যুক্তরাষ্ট্রে নতুন প্রেসিডেন্টর শপথ অনুষ্ঠানে যত সংখ্যক ন্যাশনাল গার্ড মোতায়েন করা হয় এবারের সংখ্যা তার আড়াই গুণ।

বিজ্ঞাপন

এছাড়া ডোনাল্ড ট্রাম্পের উগ্র সমর্থকরা যাতে কোনভাবেই ভিতরে প্রবেশ করতে না পারে সেজন্য ক্যাপিটল হিল ঘিরে ৮ ফুট উচ্চতার কাঁটাতারের বেড়া দেওয়া হয়েছে। এক কথায় বলা যায় ক্যাপিটল হিলকে দুর্ভেদ্য এলাকায় পরিণত করা হয়েছে। পরিস্থিতি অনুযায়ী সব ব্যবস্থাই গ্রহণ করবে নিরাপত্তা বাহিনী। এমনকি প্রয়োজনে গুলি করার কথাও বলা হয়েছে সেনাদের।

নিরাপত্তার দায়িত্বে ন্যাশনাল গার্ড ছাড়াও রয়েছে সিটি, স্টেট ও ফেডারেল পুলিশ তথা এফবিআইয়ের সদস্যরা।

বিজ্ঞাপন

রোববার জো বাইডেনের শপথ অনুষ্ঠাস্থলের কাছ থেকে সন্দেহজনক গতিবিধির জন্য এক মহিলাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তিনি প্রথমে নিজেকে একজন সাবেক সরকারী কর্মকর্তা বলে দাবি করেন। পরে পালানোর চেষ্টা করলে তাকে গ্রেপ্তার করে ক্যাপিটল পুলিশ।

ওয়াশিংটন ডিসির মেয়র ও স্থানীয় কর্মকর্তারা জনগণকে দূর থেকে জো বাইডেন ও কমলা হ্যারিসের শপথ অনুষ্ঠান দেখার অনুরোধ জানিয়েছেন।

মেরিল্যান্ড, নিউ মেক্সিকো, ইয়োটা অঙ্গরাজ্যে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে। এছাড়া পেনসেলভেনিয়া, ক্যালিফোর্নিয়া, উইসকনসিন, মিশিগান, ভার্জিনিয়া, ওয়াশিংটনসহ বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যে পরিস্থিতি মোকাবেলায় ন্যাশনাল গার্ড মোতায়েন করা হয়েছে। টেক্সাসে বাইডেনের শপথ অনুষ্ঠান পর্যন্ত ক্যাপিটল হল বন্ধ রাখা হয়েছে।

রোববারও টেক্সাসসহ কয়েকটি অঙ্গরাজ্যে ট্রাম্পের সমর্থকরা ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র বিক্ষোভের আয়োজন করে।

উল্লেখ্য, জো বাইডেনের জয়কে আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি দিতে ৬ জানুয়ারি কংগ্রেসের যৌথ অধিবেশন বসে। এ সময় প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের উল্কানিমুলক বক্তব্যের পর সমর্থকরা ক্যাপিটল হিলে ঢুকে পড়ে এবং তাণ্ডব চালায়। এতে ১ জন পুলিশসহ ৫ জন মারা যায়। তারপরই নব নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের শপথ অনুষ্ঠানে হামলার আশংকা করে এফবিআইসহ বিভিন্ন নিরাপত্তা এজেন্সী। আর তাই শপথ অনুষ্ঠানস্থলকে ঘিরে নেওয়া হয় নজিরবিহীন নিরাপত্তা।