চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বাংলাদেশ-ভারত সুসম্পর্ক চাইলে সার্ক ভুলে যান: বিবেক দেবরয়

বাংলাদেশ-ভারত সুসম্পর্ক চাইলে সার্কের কথা ভুলে যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন মন্ত্রী পদমর্যাদায় ভারতের ন্যাশনাল ইন্সটিটিউশন ফর ট্রান্সফর্মিং ইন্ডিয়ার সদস্য ড. বিবেক দেবরয়।

ইংরেজী দৈনিক দ্য এশিয়ান এজের বর্ষপূর্তি উপলক্ষে গুলশানের লেকশোর হোটেলে আলোচনায় ঢাকায় দুই দেশের সম্পর্ক নিয়ে সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি নীতি নির্ধারকদের অতীত তিক্ততা ভুলে ইতিবাচক মনোভাব নিয়ে সমস্যা সমাধানে মনোযোগী হওয়ার অনুরোধ জানান।

Reneta June

ডক্টর বিবেক দেবরয় বলেন, আলাপ তার সঙ্গেই হতে পারে যে আলাপ করতে প্রস্তুত। যে প্রলাপ করতে ব্যস্ত তার সঙ্গে আলাপ হয় না। সার্ক বরাবরই দক্ষিণ এশীয় আঞ্চলিক সহযোগিতা সংস্থা। সার্কের কথা যদি আমরা ভাবি তবে ভারত-বাংলাদেশ সম্পর্কের কথা আমরা ভুলে যেতে পারি।

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশ-ভারত বাণিজ্য অসাম্য দূর করতে আমলাতান্ত্রিক বাধা দূর করতে বেসরকারী খাতকে আরো সক্রিয় হওয়ার পরামর্শও দিয়েছেন মন্ত্রী পদমর্যাদায় ন্যাশনাল ইন্সটিটিউশন ফর ট্রান্সফর্মিং ইন্ডিয়ার সদস্য ড. বিবেক দেবরয়।

ভারতের হাইকমিশনার হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা বলেন, অতীতের যেকোন সময়ের চেয়ে বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের সম্পর্ক ভালো। এই সম্পর্ক দিনকে দিন সহযোগিতাপূর্ণ না হওয়ার কোন কারণ দেখছেন না ডক্টর বিবেক দেবরয়।

বাংলাদেশ-ভারত দুই দেশের পারস্পরিক সহযোগিতার ভিত্তিতে টেকসই প্রবৃদ্ধি বিষয়ে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. আতিউর রহমান।

প্রায় একইরকম ভৌগলিক অবস্থান, নদী, পানি, ফল, ফসল, সংস্কৃতির দুই দেশ বৈরী মনোভাব নিয়ে সমৃদ্ধির মহাসড়কে যেতে পারে না বলে মন্তব্য করেন তিনি।

ডক্টর আতিউর রহমান বলেন, আমরা কেউই একা খেতে চাই না, কেউই একা পেট ভরতে চাই না আসুন সকলে মিলে এক সঙ্গে বসে আমরা আমাদের সমস্ত সম্পদ ও উন্নয়নকে আমরা অংশীদারিত্ব করি।

আলোচকরা বলেন, যুগ যুগ জিইয়ে থাকা সমস্যা সমাধানে রাজনৈতিক সদিচ্ছা আছে দু সরকারের, এখন দরকার জনগণের অব্যাহত চাপ।