চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘বহিষ্কার ধুয়ে তামুক খাক, পাস করলে বুকে তুলে নিয়ে নাচবে’

‘বহিষ্কার ধুয়ে তারা তামুক খাক, পাস করলে তো বুকে তুলে নিয়ে নাচবে’, এমন মন্তব্য করেছেন টাঙ্গাইলের গোপালপুর পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর বিরুদ্ধে বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ায় দল থেকে বহিষ্কার হওয়া ইঞ্জিনিয়ার কেএম গিয়াস উদ্দিন।

কেএম গিয়াস উদ্দিন গোপালপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য। নারিকেল গাছ প্রতীক নিয়ে মেয়র পদে তিনি নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন।

বুধবার বিকালে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফজলুর রহমান খান ফারুক ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট জোয়াহেরুল ইসলামের সই এক চিঠিতে তাকে বহিষ্কার করা হয়।

ইঞ্জিনিয়ার কেএম গিয়াস উদ্দিনকে বহিষ্কারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন টাঙ্গাইল-৮ (সখীপুর-বাসাইল) আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট জোয়াহেরুল ইসলাম।

বিজ্ঞাপন

চিঠিতে বলা হয়, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সিদ্ধান্ত অমান্য করে শৃঙ্খলা ভঙ্গ করে পৌর নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর বিরুদ্ধে গোপালপুর পৌরসভায় বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে মেয়র পদে অংশগ্রহণ করায় দল থেকে বহিষ্কার করা হলো।

এছাড়া আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক পরিচয়সহ দলীয় সকল পরিচয় প্রদান থেকে বিরত থাকার বিষয়টি উল্লেখ করা হয় চিঠিতে।

এ বিষয়ে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট জোয়াহেরুল ইসলাম চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন: কেন্দ্রীয় নির্দেশনায় দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে ইঞ্জিনিয়ার কেএম গিয়াস উদ্দিন কে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। আজ থেকে আওয়ামী লীগের সাথে তার কোন রাজনৈতিক ও সাংগঠনিক সম্পর্ক নেই।

বহিষ্কারের বিষয়ে কেএম গিয়াস উদ্দিন চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন: আমি আগের থেকেই জানতাম আমাকে বহিষ্কার করা হবে। আর সেটা মেনে নিয়েই নির্বাচন করছি। চিঠি পাওয়া না পাওয়া কোন বিষয় না। যারা এটা করেছে তারা বহিষ্কার ধুয়ে ধুয়ে তামুক খাক। পাস করলে তো আবার বুকে তুলে নিয়ে নাচবে।

বিজ্ঞাপন