চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘বলিউডে আমার বন্ধু কে জানি না, তবে আমার শত্রু নেই’

৫০ বছরে পা রাখলেন বলিউডের কমেডিয়ান অভিনেতা রাজপাল যাদব…

স্ক্রিনে তার উপস্থিতি মানেই পেটে খিল ধরে যাওয়া হাসি। আট থেকে আশি, সর্বদা নিজের স্বতঃস্ফূর্ত অভিনয় দিয়ে তিনি মাত করে রাখেন সবাইকে। বলছি বলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় কমেডিয়ান অভিনেতা রাজপাল যাদবের কথা। মঙ্গলবার (১৬ মার্চ) জনপ্রিয় এই অভিনেতা ৫০ বছরে পা দিলেন।

অভিনেতার ৫০তম জন্মদিন উপলক্ষে একটি সাক্ষাতকার প্রকাশ করেছে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস। বিশেষ এই সাক্ষাতকারে তাকে প্রশ্ন করা হয় তার ফিল্ম ক্যারিয়ার, ব্যক্তি জীবন সহ আরও নানান বিষয় নিয়ে। চ্যানেল আই অনলাইনের পাঠকদের জন্য সাক্ষাৎকাররে কিছু অংশ থাকলো এখানে:

নিজের ফিল্ম ক্যারিয়ার নিয়ে আপনি কতটা সন্তুষ্ট? এখনো কি আপনার জনপ্রিয়তা রয়েছে নাকি কমে গিয়েছে?
২০২১ সালে আমি আমার জীবনের অর্ধশত বছর পূর্ণ করলাম। যার ভেতর প্রায় দুই দশক আমি পার করেছি ফিল্ম ক্যারিয়ারে। সত্য বলতে আমার ফিল্ম ক্যারিয়ার নিয়ে আমি অনেক সন্তুষ্ট। ২০০০ থেকে ২০১০ সাল পর্যন্ত আমি প্রায় ১০০টির মত সিনেমায় কমেডিয়ানের চরিত্রে অভিনয় করেছি। যার সবগুলোই মোটামুটি হিট ছিল। যেগুলোতে আমার অভিনয়ে তেমন সাড়া পায়নি, সেগুলো থেকে আমি নতুন করে শিখেছি। আমি বারবার শেখার চেষ্টা করেছি। মনে প্রাণে দর্শকদের হাসানোর চেষ্টা করেছি। যেটি ছিল আমার অভিনয়ের মূল লক্ষ্য।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

পর্দায় এবং পর্দার পেছনে কি আপনি একই রকম?
আমি প্রচণ্ড পর্যবেক্ষণকারী একজন ব্যক্তি। আমি মনে করি যে ব্যক্তি প্রচুর পর্যবেক্ষণ করতে পারেন তিনি মনের দিক থেকে খুবই মজার হয়ে থাকেন। আমার মতে যদি কোন ব্যক্তি তার অভিনয় ক্যারিয়ারে ৫০০টি আলাদা চরিত্রে অভিনয় করতে পারে তবে তাকে আলাদা ভাবে শ্রেণিবদ্ধ করা যায় না।

বিজ্ঞাপন

কমেডি চরিত্রে অভিনয়ের অনুপ্রেরণা কার থেকে পেয়েছেন?কমেডি চরিত্রে অভিনয়ের জন্য আমি অনুপ্রেরণা পেয়েছি চার্লি চ্যাপলিনের থেকে। এক অর্থে তাকে আমি বন্ধু মনে করি। যার সাথে ঘন্টার পর ঘন্টা কথা হয়।

চলচ্চিত্রে ডিজিটাল মাধ্যমকে কীভাবে দেখছেন?
চলচ্চিত্রে এখন ডিজিটাল মিডিয়ার প্রভাব অনেক বেশি। কম বেশি সবাই ওটিটি প্লাটফর্মের উপর নির্ভরশীল হচ্ছেন। যদিও এটি যুগের সাথে তাল মিলানো। তবে এতে যেন আমাদের চলচ্চিত্র ক্ষতিগ্রস্ত না হয় সে দিকেও খেয়াল রাখা উচিত।

এখন পর্যন্ত আপনার সবচেয়ে পছন্দের চরিত্র কোনটি?
আমার অভিনীত সকল চরিত্রই খুব পছন্দের। আমি আমার সকল চরিত্রকেই ভালোবাসি। তবে যখন ‘হাঙ্গামা টু’ ছবিটি পর্দায় আসবে তখন আমি আপনার কাছে জানতে চাইবো, আমি ভালো নাকি সে? যেমনটা হয়েছিল ‘ম্যায়, মেরি পত্নি অর ওহ’ এর ক্ষেত্রে।

বলিউড ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে আপনার বন্ধু কারা?
আমি জানি না আমার বন্ধু কে। তবে আমি জানি যে বলিউড ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে আমার কোন শত্রু নেই।