চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বলিউডের বড় তারকাদের ছোট পর্দা জয়

বলিউড তারকারা এতটাই ব্যস্ত থাকেন যে অনেক বড় নির্মাতার সিনেমা ফেরাতেও বাধ্য হন মাঝে মাঝে। কিন্তু শত ব্যস্ততার মাঝেও বলিউডের কিছু তারকা টেলিভিশনের অনুষ্ঠানে অংশ নেয়ার জন্য সময় বের করে ফেলেন।

সালমান খান, অমিতাভ বচ্চনের মতো বড় তারকারাও তাদের ব্যস্ত রুটিনের ফাঁকে অনেকটা সময় বরাদ্দ রাখেন টেলিভিশনের পর্দার জন্য।

বিজ্ঞাপন

অমিতাভ বচ্চনের কথাতেই প্রথমে আসা যাক। জনপ্রিয় শো ‘কৌন বনেগা ক্রোড়পতি’র উপস্থাপনা করেন তিনি দুই দশক ধরে। মাঝে শুধু তৃতীয় সিজনে উপস্থাপনা করেছিলেন শাহরুখ খান। ‘কৌন বনেগা ক্রোড়পতি’র ১২ তম সিজন প্রচার করা হচ্ছে বর্তমানে।

বেশ কয়েক বছর ধরে ‘বিগ বস’ উপস্থাপনা করছেন সালমান খান। প্রতিযোগীদের চাইতে উপস্থাপক সালমানকে ঘিরেই ভক্তদের উত্তেজনা বেশি থাকে। প্রতিযোগীদের সম্পর্কে সালমানের মতামত জানার জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করেন দর্শকরা। ‘বিগ বস’ হাউজে অমিতাভ বচ্চন, সঞ্জয় দত্ত, শিল্পা শেঠি, আরশাদ ওয়ারসির মতো তারকারা অতিথি হয়ে এসেছেন অনেকবার।

‘ইন্ডিয়ান প্রো মিউজিক লিগ’ শুরু হবে আগামী বছরের শুরুতে। ছয়টি দল থাকবে সেখানে বলিউড তারকাদের। শ্রদ্ধা কাপুর, শক্তি কাপুর, সিদ্ধান্ত কাপুর, রাজকুমার রাও, গোবিন্দ, রিতেশ দেশমুখকে দেখা যাবে ভারতের বিভিন্ন এলাকা থেকে আশা প্রতিযোগীদের দলের প্রতিনিধিত্ব করতে।

আমির খানকে প্রথমবারের মতো টিভি পর্দায় দেখা গিয়েছিল জনপ্রিয় ‘সত্যমেব জয়তে’ টক শোতে। টিআরপির শীর্ষে থাকা এই অনুষ্ঠানটির প্রতিটি পর্বে ভারতের একটি নির্দিষ্ট সমস্যাকে তুলে ধরা হতো। নারী ভ্রূণ হত্যা, শিশুদের ওপর যৌন হয়রানি, স্বাস্থ্যসেবা খাত, যৌতুক প্রথাসহ বিয়েকেন্দ্রিক অন্যান্য সামাজিক সমস্যা, প্রতিবন্ধী মানুষদের সমস্যা, কৃষিক্ষেত্রে অতিরিক্ত কীটনাশকের ব্যবহারের ক্ষতিকর প্রভাব নিয়ে বিভিন্ন পর্ব তৈরি করা হয়েছিল।

মাধুরীর ‘ড্যান্স দিওয়ানে’, সানি লিওনের ‘ এমটিভি স্প্লিটসভিলা’ও দর্শকপ্রিয়তা পেয়েছিল। ‘নাচ বালিয়ে’, ‘সুপার ড্যান্সার’ সহ একাধিক শো-তে বিচারক হিসেবে দেখা গেছে শিল্পা শেঠিকে। গত বছর ‘ড্যান্স ইন্ডিয়া ড্যান্স’-এ কারিনাকে দেখা গেছে বিচারক হিসেবে।

বলিউড তারকাদের অংশগ্রহণে টেলিভিশনের এসব অনুষ্ঠানের চাহিদা বেড়ে যায় অনেক। ফলে এই অনুষ্ঠানগুলোর ফাঁকে বিজ্ঞাপন প্রচার নিয়েও চলে প্রতিযোগিতা।

ভারতের অন্যতম বিনোদনের মাধ্যম টেলিভিশন। প্রতিবছর টেলিভিশনের দর্শকের সংখ্যা বাড়ছে। এমনকি মহামারিতেও এই চাহিদা একটুও কমেনি, বরং বেড়েছে। ওটিটি প্ল্যাটফর্মের চাহিদাও বেড়েছে। তবে টেলিভিশনের সাথে সেটার তুলনা করার প্রশ্নই আসে না। -কইমই