চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বরিশাল সিটির সাবেক মেয়র আহসান হাবিব কামালের জামিন

দুর্নীতির অভিযোগে করা মামলায় বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র ও জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি আহসান হাবিব কামালকে জামিন দিয়েছে হাইকোর্ট।

বিচারপতি মো. সেলিমের ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চ মঙ্গলবার তাকে ছয় মাসের জামিন দেয়। আদালতে আহসান হাবিব কামালের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন, রুহুল কুদ্দুস কাজল ও এইচ এম সানজিদ সিদ্দিকী। আর দুর্নীতি দমন কমিশন -দুদকের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী এ কে এম ফারহান। আজকের এই আদেশের ফলে তার মুক্তিতে বাধা নেই বলে জানিয়েছেন তার আইনজীবীরা।

বিজ্ঞাপন

অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে ২০১০ সালের ১১ অক্টোবর আহসান হাবিব কামালসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে মামলা করেন দুর্নীতি দমন কমিশন ঢাকা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক আব্দুল বাসেদ। মামলার এজাহারে বলা হয়, ১৯৯৫ সালের ২১ ডিসেম্বর থেকে ১৯৯৬ সালের ৩ জুন পর্যন্ত প্রতারণার মাধ্যমে আসামিরা ২৭ লাখ ৬০ হাজার ৬৩৯ টাকা আত্মসাৎ করেছেন। ওই সময় আহসান হাবিব কামাল বরিশাল পৌরসভার চেয়ারম্যান ছিলেন। পরবর্তিতে তিনি বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের মেয়রের দায়িত্ব পালন করেন। আর অন্য আসামিদের মধ্যে তিনজন পৌরসভায় বিভিন্ন পদে কর্মরত ছিলেন, অন্যজন ছিলেন ঠিকাদার।

এই মামলার তদন্তের পর ২০১১ সালের ১৯ জুলাই আহসান হাবিব কামাল, সিটি করপোরেশনের বর্তমান তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী ও ওই সময়ের সহকারী প্রকৌশলী খান মো. নূরুল ইসলাম, ওই সময়ের পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী মো. ইসাহাক, উপ-সহকারী প্রকৌশলী আব্দুস সত্তার ও ঠিকাদার জাকির হোসেনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করে দুদক। ২০ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে গত বছর ২০ নভেম্বর বরিশাল বিভাগীয় বিশেষ জজ মো. মহসিনুল হক পাঁচ আসামিকে সাত বছর করে কারাদণ্ড দেন। সেই সঙ্গে আহসান হাবিব কামাল ও জাকির হোসেনকে এক কোটি টাকা করে জরিমানা করা হয়। এই রায় ঘোষণার পর আসামিদের বরিশাল কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়। পরে এই রায়ের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আপিল করলে গত বছর ৩০ নভেম্বর হাইকোর্ট আপিল গ্রহণ করে আর্থিক দণ্ড স্থগিত করে। এরপর আহসান হাবিব কামাল এই মামলায় জামিন আবেদন করে। সে আবেদনের শুনানি নিয়ে আজ জামিন আদেশ দিলেন হাইকোর্ট।

বিজ্ঞাপন