চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বদলে যাচ্ছে ডেঙ্গু জ্বরের পরিস্থিতি

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের তথ্য অনুসারে, চলতি সেপ্টেম্বর মাসের প্রথম সপ্তাহে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ৫ হাজার। আর গত ২৪ ঘণ্টায় (৭ সেপ্টেম্বর) ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছেন ৭৬১ জন। গতমাসের বিভিন্ন সময়ের সঙ্গে তুলনা করলে এই সংখ্যা অনেক কম। তবে আজও রাজধানীসহ সারাদেশে ডেঙ্গুতে মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে।

কয়েকদশকের মধ্যে এই বছর সারাদেশজুড়ে ডেঙ্গুর প্রকোপ মারাত্মক আকার ধারণ করে। আগের বছরগুলোতে শুধুমাত্র রাজধানীতে এই রোগ দেখা গেলেও ঈদের ছুটিতে সারাদেশে যাতায়াত করা মানুষের কারণে সারাদেশে ছড়িয়ে পড়ে ডেঙ্গু। উল্লেখযোগ্য সংখ্যক মানুষ আক্রান্ত হবার পাশাপাশি অনেকে প্রাণ হারান এডিস মশাবাহিত এই জ্বরে।

বিজ্ঞাপন

কন্ট্রোল রুমের তথ্য অনুযায়ী, চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে এ পর্যন্ত ৭৫ হাজার ৭৫৩ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী হাসপাতালে ভর্তি হন এবং তাদের মধ্যে চিকিৎসা শেষে ছাড়পত্র নিয়ে চলে গেছেন ৭২ হাজার ১১৪ জন। এখন পর্যন্ত রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটে (আইইডিসিআর) ডেঙ্গু সন্দেহে ১৯২টি মৃত্যুর তথ্য পাঠানো হয়েছে। এর মধ্যে সংস্থাটি ৯৬টি ঘটনার পর্যালোচনা সমাপ্ত করে ৫৭টি মৃত্যু ডেঙ্গুজনিত বলে নিশ্চিত করেছে।

বিজ্ঞাপন

আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যার বিচারের এই অবস্থা যথেষ্ট নেতিবাচক হলেও আক্রান্তের সংখ্যা কমার বিষয়টি আশাজাগানিয়া। দেশজুড়ে সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপের পাশাপাশি জনগণের সচেতনতার ফলে কমে আসছে ডেঙ্গুর প্রকোপ। সেইসঙ্গে ঋতুচক্রের স্বাভাবিক নিয়মে ডেঙ্গুর মৌসুম বর্ষাকাল শেষ হয়ে শরৎকাল শুরু হওয়াতে কিছুটা স্বস্তি দেখা দিচ্ছে জনমনে।

ডেঙ্গুর সর্বশেষ পরিস্থিতি জানাতে রোববার দুপুরে সংবাদ সম্মেলন করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। এসময় রোগনিয়ন্ত্রণ শাখার পরিচালক বলেন, ডেঙ্গু রোগ অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে চলে এসেছে। প্রতিনিয়তই এ সংখ্যা কমে আসছে। পরিচালকের কথার মতো আমাদেরও ধারণা, ডেঙ্গু আক্রান্তের সংখ্যা ধীরে ধীরে প্রায় শূন্যতে চলে আসবে ।

এবছরের ডেঙ্গুর প্রকোপ থেকে শিক্ষা নিয়ে আগামী বছরগুলোতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষসহ সারাদেশের জনগণ সচেতন হবে বলে আমাদের আশাবাদ। তাছাড়া শুধু সরকারের বা সিটি-পৌরসভার মেয়রদের দিকে তাকিয়ে না থেকে জনগণের উচিত নিজ নিজ বাড়িঘরসহ এডিস মশার প্রজননস্থলগুলো সারাবছর পরিষ্কার রাখার অভ্যাস করা। তাহলেই হয়তো সামনের দিনগুলিতে নিয়ন্ত্রণে আসবে ডেঙ্গুজ্বর, অকালে প্রাণ হারাতে হবে না দেশের মানুষকে।

Bellow Post-Green View