চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বঙ্গবন্ধুর বাকি খুনিদের দ্রুত বিচার চাইলেন রিয়াজ

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫তম মৃত্যুদিন উপলক্ষে এফডিসিতে শোক সভায় চিত্রনায়ক রিয়াজসহ উপস্থিত ছিলেন শীর্ষস্থানীয় অভিনেতা, নির্মাতা ও প্রযোজকরা

‘বঙ্গবন্ধুসহ তার পরিবারকে হত্যা করে একটি চক্র আজও চেষ্টা করছে স্বাধীনতার পক্ষের শক্তিকে বিভিন্নভাবে কলঙ্কিত করতে। বঙ্গবন্ধু কন্যা আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সেই চক্রের তালা ভেঙে কয়েকজনের বিচার করেছেন। আজকের এই শোকের দিনে আমি তার কাছে অনুরোধ করছি, যেসব খুনি দেশের বাইরের অবস্থান করছে দ্রুত তাদের দেশে এনে বিচার করা হোক।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃষ্টি আকর্ষণ করে কথাগুলো বলছিলেন জনপ্রিয় চিত্রনায়ক রিয়াজ। শনিবার দুপুর ১২ টায় এফডিসিতে চলচ্চিত্র পরিবারের উদ্যোগে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫তম মৃত্যুদিন উপলক্ষে শোক সভার বক্তব্য দেয়ার সময় রিয়াজ এসব বলেন।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, ১৫ আগস্ট বাঙালি জাতির জন্য অত্যন্ত কলঙ্কের একটি দিন। ১৯৭৫ সালের আজকের রাতেই কিছু বিপথগামি মানুষ আমাদের পিতাকে স্বপরিবারে হত্যা করেছিলো। তারা একটি সুসংগঠিত চক্র। ২০২০ সালেও সেই চক্র সক্রিয়। তারা বিভিন্ন প্রপাগান্ডা, বিভিন্ন গুজব সোশাল মিডিয়াসহ বিভিন্ন জায়গায় ছড়াচ্ছে। আমি বিশ্বাস করি, প্রধানমন্ত্রী অত্যন্ত বিচক্ষণতার সাথেই এই চক্রকে দমনের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন এবং অতি দ্রুত তিনি বাংলার মাটিকে কলঙ্কমুক্ত করতে সক্ষম হয়ে আবারও সফলতার পরিচয় দেবেন।

এদিকে শোক দিবস উপলক্ষে নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে এফডিসিতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫তম শাহাদাতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালন করা হচ্ছে। সকালেই চলচ্চিত্রের ১৯টি সংগঠনের ব্যানারে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।

দুপুর ১২ টায় এফডিসির অনুষ্ঠিত হওয়া আলোচনা সভা রিয়াজ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন শাকিব খান, মিশা সওদাগর, ওমর সানী, অনন্ত জলিল, সাইমন সাদিক, নূতন, রোজিনা, মৌসুমী, নিপুন ও অপু বিশ্বাস। প্রযোজক সমিতির সভাপতি খোরশেদ আলম খসরু, সেক্রেটারি শামসুল আলম ও ১৯ সংগঠনের নেতারাও উপস্থিত ছিলেন। পরিচালক সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করেন। সেখানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়েছিল তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ।