চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ফ্লোরিডায় হামলার দায় স্বীকার আইএসের

যুুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যের অরল্যান্ডোতে সমকামীদের নাইটক্লাবে বোমা বিস্ফোরণ এবং গুলি চালিয়ে কমপক্ষে ৫০ জন নিহতের ঘটনায় দায় স্বীকার করেছে ইসলামিক স্টেট (আইএস)।

মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক এই জঙ্গি গোষ্ঠীর বার্তা সংস্থা আমাক দায় স্বীকারের বার্তা দিয়েছে বলে রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

নাইন-ইলেভেনের পর যুক্তরাষ্ট্রে ইতিহাসে সবচেয়ে ভয়াবহ এই হামলার দায় স্বীকার করে আইএস বলেছে: যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যে ‘গে নাইট ক্লাব’ লক্ষ্য করে সশস্ত্র হামলা করা হয়েছে। যাতে শতাধিক মানুষ নিহত বা আহত হয়েছে। যা একজন আইএস যোদ্ধা চালিয়েছেন।

অরল্যান্ডোর পালস নৈশক্লাবে ঢুকে গুলি চালায় এক বন্দুকধারী। হামলা শুরুর তিন ঘণ্টার মধ্যে নিরাপত্তারক্ষীদের গুলিতে ওই হামলাকারী নিহত হয়।

পুুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীদের ভাষ্যমতে অ্যাসাল্ট রাইফেল, হ্যান্ডগান এবং একটি বিস্ফোরক ডিভাইস নিয়ে ২৯ বছর বয়সী ওই হামলাকারী পালস নামের ওই নাইট ক্লাবে প্রবেশ করে এবং ক্লাব বন্ধের কিছুক্ষণ আগে নাচের মঞ্চ লক্ষ্য করে এলোপাথাড়ি গুলি শুরু করে। কমপক্ষে ৫০ জনকে হত্যা করে ধ্বংসযজ্ঞ চালায়।

মার্কিন তদন্ত সংস্থা এফবিআই প্রাথমিকভাবে হামলাকারী স্থানীয় কেউ নয় এবং উগ্রবাদী ইসলামিক সংগঠনের সঙ্গে তার সম্পৃক্ততা থাকতে পারে বলে ধারণা করলেও পরে হামলাকারীর পরিচয় সনাক্ত করে। তারা বলছেন, ফ্লোরিডার ফোর্ট পিয়ার্স এলাকার বাসিন্দা ওমর সিদ্দিক মতিন (২৯) এই হামলা চালান।

জঙ্গি সংশ্লিষ্টতার সন্দেহে এর আগে দুই বার এফবিআইয়ের তদন্তের মুখে পড়েছিলেন মতিন। হামলার সময় তিনি পুলিশে ফোন করে আইএসের প্রতি আনুগত্যের কথা জানান।

এ নৃশংস হামলাকে ‘সন্ত্রাস ও বিদ্বেষের কাজ’ আখ্যা দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা শোক ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। এসময় জনগণকে রক্ষা এবং সন্ত্রাসবাদ রুখতে আমেরিকানরা ঐক্যবদ্ধ বলে তিনি মন্তব্য করেন।

বিজ্ঞাপন