চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ফের প্রশ্নের মুখে সুনীল নারিনের বোলিং

কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের বিপক্ষে কলকাতা নাইট রাইডার্সকে শনিবার অবিশ্বাস্য এক ম্যাচ জিতিয়েছেন সুনীল নারিন। ১৮ ও ২০তম ওভারে বল করেছেন, ২ উইকেট নিয়ে রান দিয়েছেন মাত্র ১৩। ম্যাচটা জিতে গেছে কলকাতা। সঙ্গে নারিনের বোলিং অ্যাকশন নিয়ে আবারও উঠে গেছে প্রশ্ন।

ম্যাচের দুই আম্পায়ার ক্রিস গ্যাফানি ও উলহাস গান্ধে নারিনের বোলিং নিয়ে সন্দেহ তুলে ম্যাচ রিপোর্ট দিয়েছেন, আইপিএলের বিবৃতিতে এমন জানানো হয়েছে। পরবর্তী কোনো ম্যাচে ক্যারিবিয়ান অলরাউন্ডারের বোলিং নিয়ে আরেকবার প্রশ্ন উঠলেই আসরের বাকি সময়ে আর বল করতে পারবেন না তিনি। যতক্ষণ পর্যন্ত না বিসিসিআই কমিটি তাকে বল করার অনুমতি দেয় অ্যাকশন শোধরানোর পরীক্ষায় পাশের পর।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

অতীতে একাধিকবার বোলিং অ্যাকশন নিয়ে প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছেন নারিন। ২০১৪ সালে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ টি-টুয়েন্টিতে দুবার তার বোলিং নিয়ে সন্দেহ করার পর ফাইনালে চেন্নাই সুপার কিংসের বিপক্ষে আর বলই দেয়া হয়নি তাকে। পরের বছর শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে পাল্লেকেলেতে ফের বোলিং নিয়ে প্রশ্ন ওঠার পর নারিনকে নিষিদ্ধ করে আইসিসি।

বিজ্ঞাপন

অ্যাকশন পাল্টালেও ২০১৫ ওয়ানডে বিশ্বকাপ খেলেননি নারিন। ২০১৫ সালের আইপিএলেও একাধিকবার তার অ্যাকশন নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন আম্পায়াররা। দেয়া হয় হুঁশিয়ারি। ২০১৮ সালে পাকিস্তান সুপার লিগেও উঠেছে প্রশ্ন। যদিও সেবার বোলিং নিয়ে পরে কোনো সন্দেহ আসেনি।

২০১২ সাল থেকে কলকাতার হয়ে আইপিএলে খেলছেন নারিন। সেবার ২৪ উইকেট নিয়ে দলটিকে প্রথমবারের মতো শিরোপা জিতিয়েছেন। পরের আসরেও ২২ উইকেট নিয়েছেন। ২০১৫ সালে বোলিং অ্যাকশন পাল্টানোর পর থেকে তার বোলিংয়ে চলছে খরা। এরপর থেকে ব্যাট হাতে জ্বলে উঠে স্পিনার থেকে হয়ে গেছেন অলরাউন্ডার, ২০১৭ ও ২০১৮ সালে করেছেন ২২৪ এবং ৩৫৭ রান। কেকেআর তাকে দিয়ে ওপেন করায় নিয়মিত।