চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ফুড ডেলিভারি প্রতিষ্ঠান ‘হাংরিনাকি’ কিনে নিল দারাজ

Nagod
Bkash July

অনলাইনে ফুড ডেলিভারি সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান ‘হাংরিনাকি’ কিনে নিল চীনের আলিবাবার অঙ্গ প্রতিষ্ঠান দারাজ।

Reneta June

বৃহস্পতিবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে দারাজ ও হাংরিনাকি একীভূত হওয়ার ঘোষণা দিয়েছে উভয় প্রতিষ্ঠানের শীর্ষ কর্ণধাররা।

সংবাদ সম্মেলনে দারাজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ মোস্তাহিদুল হক এবং হাংরিনাকি’র প্রধান নির্বাহী ও সহ-প্রতিষ্ঠাতা এডি আহমেদসহ উভয় প্রতিষ্ঠানের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেনে বলা হয়, এখন থেকে হাংরিনাকির সব স্থাবর ও অস্থাবর সম্পত্তি অধিগ্রহণ করেছে দারাজ। তবে এতে হাংরিনাকির বর্তমান ব্যবসায়িক কার্যক্রমে কোনো প্রভাব পড়বে না। হাংরিনাকির বর্তমান কর্মীরাই কাজে নিয়োজিত থাকবেন। সরাসরি দারাজের পরিচালনায় পৃথক ও স্বতন্ত্র ফুড প্ল্যাটফর্ম হিসেবে পরিচালিত হবে হাংরিনাকি।

এর আগে ২০১৮ সালে দারাজকে কিনে নিয়েছিল চীনা ই–কমার্স জায়ান্ট আলিবাবা।

তবে কত টাকার বিনিময়ে এই একীভূতকরণ করা হয়েছে, তা প্রকাশ করতে রাজী হননি দুই পক্ষের কেউই। এ বিষয়ে সাংবাদিকরা জানতে চাইলে তারা বলেন, ব্যবসায়িক স্বার্থে অর্থের পরিমাণটা আমরা এই মুহূর্তে প্রকাশ করতে চাচ্ছি না। এটা আমাদের মধ্যেই থাকুক।

দারাজ কেন হাংরিনাকি কিনল? এমন প্রশ্নের জবাবে দারাজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ মোস্তাহিদল হক বলেন, দারাজের ফুড ব্যবসা নেই। ফুড ব্যবসায় যেতে হাংরিনাকি কেনা হয়েছে। তা ছাড়া হাংরিনাকি নামটাও দারাজকে আকর্ষণ করেছিল। দারাজ যেমন ৬৪ জেলায় আছে, হাংরিনাকিও ৬৪ জেলায় থাকবে।

দারাজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়ল মোস্তাহিদল হক বলেন, ক্রেতাদের জন্য আমরা একটি ওয়ান স্টপ সল্যুশন হতে চাই। আর স্বাভাবিক পদক্ষেপ হিসেবেই ফুড ডেলিভারি ব্যবসায় প্রবেশ করেছি। একটি বিশ্বস্ত কাস্টমার বেজ নিয়ে হাংরিনাকি বাংলাদেশে ফুড ডেলিভারি ব্যবসায় পথিকৃৎ।

তিনি বলেন, প্রাথমিক পর্যায় থেকে নিজেদের ফুড ডেলিভারি ব্যবসা শুরু করার চেয়ে, হাংরিনাকি অধিগ্রহণ করা শ্রেয়। অবকাঠামো, প্রযুক্তি ও মানবসম্পদে বিনিয়োগের মাধ্যমে আমরা হাংরিনাকি’কে নতুন উচ্চতায় নিয়ে যেতে পারব।

হাংরিনাকি’র প্রধান নির্বাহী এবং সহ-প্রতিষ্ঠাতা এডি আহমেদ বলেন, এ অধিগ্রহণের মাধ্যমে বোঝা যায় আমাদের ই-কমার্স খাত একটি আশাব্যঞ্জক অবস্থানে রয়েছে। এছাড়াও দেশীয় স্টার্ট-আপ এবং উদ্যোক্তাদের জন্য এটি সুখবর বয়ে আনবে। এমন অধিগ্রহণের দৃষ্টান্তর বাজারে ইতিবাচক মনোভাব তৈরি করবে এবং অর্থনীতিকে গতিশীল রাখবে।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, ২০১৩ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় ফুড ডেলিভারি সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান হাংরিনাকি। দেশের ৫টি শহরে অসংখ্য রেস্টুরেন্ট, ক্লাউড কিচেন এবং হোম কিচেন নিয়ে এই প্রতিষ্ঠানটি হাজার হাজার গ্রাহককে প্রতিদিন পৌঁছে দিচ্ছে সুস্বাদু খাবার। ঢাকা, চট্টগ্রাম, সিলেট, কক্সবাজার ও নারায়ণগঞ্জে ৫ লাখেরও বেশি মানুষ এখন তাদের পছন্দ অনুযায়ী খাবার অর্ডার করতে হাংরিনাকি ব্যবহার করে থাকেন।

অন্যদিকে, দারাজ বর্তমানে দক্ষিণ এশিয়ার শীর্ষ স্থানীয় অনলাইন মার্কেটপ্লেস। দারাজ ক্রেতা ও বিক্রেতার সংযোগ ঘটানোর মাধ্যমে লক্ষাধিক বিক্রেতার ক্ষমতায়নে কাজ করছে। শতাধিক ক্যাটাগরির আওতায় কোটিরও বেশি পণ্য পাওয়া যায় দারাজে, যার চাহিদা পূরণে প্রতিমাসে প্রতিষ্ঠানটি দেশের আনাচে-কানাচে ২০ লাখেরও বেশি প্যাকেজ ডেলিভারি দিয়ে থাকে।

BSH
Bellow Post-Green View