চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ফাইনালে ধোনির চেন্নাই, আরেকটি সুযোগ পাবে দিল্লি

শেষ ওভারে চেন্নাই সুপার কিংসের জয়ের জন্য দরকার ছিল ১৩ রান। প্রথম বলেই গেল মঈনের উইকেট। ওই শেষ। আর কোনো বিপদ মাথা তুলতে পারেনি। উইকেটে যে ছিলেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। পরের তিন বলে টানা তিন চার মেরে খেলা শেষ করে দেন ভারতের সাবেক অধিনায়ক। দিল্লিকে হারিয়ে ফাইনালের টিকেট পেয়ে যায় চেন্নাই।

দুবাইয়ে চলতি আইপিএল আসরের প্রথম কোয়ালিফায়ারে দিল্লি ক্যাপিটালসকে ৪ উইকেটে হারিয়ে প্রথম দল হিসেবে ফাইনালের মঞ্চে গেছে চেন্নাই। দিল্লির আশা অবশ্য শেষ হয়ে যাচ্ছে না। তারা আরেকটি সুযোগ পাবে দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে।

এলিমিনেটর ম্যাচে খেলবে বিরাট কোহলির রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু ও সাকিব আল হাসানদের কলকাতা নাইট রাইডার্স। পরাজিত দলটি ছিটকে যাবে, জয়ী দলটি খেলবে দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে। যেখানে তাদের প্রতিপক্ষ হবে প্রথম কোয়ালিফায়ারে হারা দিল্লি। শেষে দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারের জয়ী দল ফাইনাল খেলবে চেন্নাইয়ের বিপক্ষে।

রোববার শুরুতে ব্যাট করে নির্ধারিত ওভারে ৫ উইকেটে ১৭২ রান তোলে দিল্লি। জবাব দিতে নেমে ২ বল আর ৪ উইকেট অক্ষত রেখে জয়ে নোঙর ফেলে চেন্নাই।

বিজ্ঞাপন

পৃথ্বী শ উদ্বোধনীতে ফিফটি দেন দিল্লিকে। ৭ চার ও ৩ ছক্কায় ৩৪ বলে ৬০ রানের ইনিংস তার। আরেকটি ফিফটি এসেছে অধিনায়ক রিশভ পান্টের থেকে, অপরাজিত ৫১ রানের ইনিংস তার। সাজানো ৩ চার ও ২ ছয়ে ৩৫ বলে।

বাকিদের মধ্যে বলার মতো রান কেবল শিমরন হেটমায়ারের, ৩ চার ও এক ছয়ে ২৪ বলে ৩৭ করেছেন।

লক্ষ্য তাড়ায় নেমে চেন্নাইও পায় উদ্বোধনী একজনের ফিফটি। ঋতুরাজ গায়কোয়াড ৭০ করে ম্যাচের গতিপথ ঠিক করে দেন। ৫ চার ও ২ ছক্কার ইনিংস তার।

রবীন উথাপ্পা করে যান ৬৩ রান, ৭ জার ও ২ ছয়ে ৪৪ বলে সাজানো ইনিংস। শেষদিকে মঈন আলি ১২ বলে ১৬ এবং ধোনি ৬ বলে অপরাজিত ১৮ রানে ম্যাচ শেষ করে আসেন।

বিজ্ঞাপন