চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ফাঁকা এফডিসি, নেই আগের মতো শুটিং

করোনা প্রকোপে নির্মিতব্য সিনেমাগুলোর শুটিং বন্ধ। তাই দীর্ঘদিন ফাঁকা পড়ে আছে এফডিসি। কেউ কেউ ধীরে ধীরে শুটিংয়ে ফিরছেন। রবিবার সকাল-দুপুরে এফডিসি ঘুরে দেখা যায়, ব্যস্ততা নেই লাইট ক্যামেরার অ্যাকশনের আলো ঝলমলে এ আঙিনায়!

ভেঙে ফেলা হয়েছে এফডিসির ঐতিহ্যবাহী তিন ও চার নাম্বার শুটিং ফ্লোর

বিজ্ঞাপন

এখানেই ছিল এফডিসির ঐতিহ্যবাহী তিন ও চার নাম্বার শুটিং ফ্লোর, যা ইতোমধ্যেই ভেঙে ফেলা হয়েছে। ভাঙার শেষ মুহূর্তের কাজ চলছে। এখানেই গড়ে উঠবে ১৫ তলা আধুনিক ভবন। নতুন ভবন তৈরির কাজ শুরু হতে আগামি ডিসেম্বর-জানুয়ারি মাস পর্যন্ত লেগে যেতে পারে। সরকার এফডিসির আধুনিকায়ন করার জন্য ৯৪ কাঠা জমির ওপর নতুন এ ভবন নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছে।

তিন ও চার নাম্বার ফ্লোরের সামনে থাকা বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতির সামনে পড়ে থাকা ময়লা পরিস্কার করছেন এফডিসির পরিছন্ন কর্মীরা।

চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির অফিস

অন্য সময় পরিচালকদের আনাগোনায় এ জায়গা মুখরিত থাকলেও রবিবার সকাল সাড়ে ১১ টার দিকেও দেখা যায়নি কাউকে। তবে দুপুর ১২ টার পর অফিস খোলা দেখতে পাওয়া যায়।

এফডিসির সবচেয়ে আলোচিত সংগঠন শিল্পী সমিতি। চিরাচেনা ব্যস্ত থাকা শিল্পী সমিতিও ফাঁকা! 

অমর নায়ক সালমান শাহ’র ২৪ তম মৃত্যুদিন উপলক্ষে শিল্পী সমিতির বিকেলে আয়োজন করেছে মিলাদ মাহফিলের। শিল্পী সমিতির দেয়ালে টাঙানো সেই শোক বার্তার ব্যানার।  বাংলা সিনেমা দর্শকদের কাছে অতি পরিচিত এক জায়গা। এফডিসির শুটিং মানেই এ রাস্তাটিতে বিভিন্নভাবে ব্যবহার করে পর্দায় তুলে ধরা হতো। প্রশাসনিক ভবনে যাওয়ার মূল সড়ক এটি। দুপুর ১২ টার দিকেও এমন ফাঁকা দেখা যায়।

এফডিসির আট নম্বর ফ্লোরের ছাদের কার্নিশে বসে এদিক সেদিক ছুটে যাচ্ছে দুটি বানর। কখনো পাশে থাকা আম গাছের মগ ডালে উঠছে। নিরাপত্তা কর্মী জানায়, কারওয়ান বাজারের সবজীর আড়ত থেকে বানর দুটি এসেছে। যেদিন ভিড় থাকে, সেদিন বানর দুটিকে দেখা যায় না।  এফডিসির নামকরা কড়ইতলা। যেখানে সেট বানিয়ে বিভিন্ন ছবির শুটিং করা হয়। বিশেষ করে গানের শুটিংগুলো এখানেই হয়। 

ডানে লাল রঙা বিল্ডিংটি নায়ক জসিম ফ্লোর। এখানে চলছে ‘টুঙ্গিপাড়ার মিয়াঁভাই’ নামে এক মাত্র সিনেমার শুটিং। জানা গেছে, বঙ্গবন্ধুর কিশোর জীবন নিয়ে নির্মিত হচ্ছে এ সিনেমাটি। রবিবার সকাল থেকে শুটিংয়ে অংশ নিয়েছেন শান্ত খান ও দিঘী। 

নায়ক মান্না ডিজিটাল স্টুডিওর সামনেও ফাঁকা। এখানে সেট নির্মাণ করে লোক সমাগম দৃশ্যগুলোর শুটিং হয়ে থাকে।

জসিম ফ্লোর থেকে বেরিয়ে হেঁটে প্রযোজক সমিতির অফিসে যাচ্ছেন চলচ্চিত্র নির্মাতা কাজী হায়াত।

ছবি: নাহিয়ান ইমন