চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

শেষের আলোতেই উজ্জ্বল আর্জেন্টিনা

যতই হোক প্রীতি ম্যাচ, দুই প্রতিপক্ষের নাম যখন জার্মানি আর আর্জেন্টিনা, তখন ফুটবল প্রেমীদের নজর থাকবেই সেই খেলায়। বুধবার রাতে সিনিয়াল ইদুনা পার্কে জার্মানির মুখোমুখি হয়েছিল আর্জেন্টিনা। তাতে অবশ্য কোনো দলের সমর্থকদেরই হতাশ হতে হয়নি। আর্জেন্টিনার শেষের ঝলকে ২-২ গোলে ড্র হয়েছে ম্যাচ।

চোটের কারণে ছিটকে যাওয়া এক ঝাঁক তারকা ফুটবলার ছাড়াই প্রথমার্ধে আর্জেন্টিনাকে কাঁপিয়ে দেয় জার্মানি। ২২ মিনিটের মধ্যেই দুইবার লিডও নিয়ে ফেলে তারা। বিরতির পর অবশ্য উল্টো চিত্র। স্বাগতিকদের চেপে ধরে আর্জেন্টিনা। লুকাস আলারিও ও লুকাস ওকাম্পোসের গোলে ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়ে মেসি-আগুয়েরো-ডি’ মারিয়া হীন আকাশী-নীলরা।

বিজ্ঞাপন

ম্যাচের দুই অর্ধের চিত্র ছিল দুরকম। প্রথম ৪৫ মিনিটে অদম্য ছিল জোয়াকিম লোর শিষ্যরা, পরের ৪৫ মিনিটে দুর্দান্ত নৈপুণ্য দেখায় লিওনেল স্কোলানির শিষ্যরা।

ম্যাচের ১৫ মিনিটে ফরোয়ার্ড সার্জে গ্যানাব্রির গোলে এগিয়ে যাওয়া জার্মানদের হয়ে ২২ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন মিডফিল্ডার কাই হাভার্টস। পরের গোলটিতেও অবদান রাখেন বায়ার্ন মিউনিখের ফুটবলার গ্যানাব্রি। ৬৬ মিনিটে বদলি স্ট্রাইকার আলারিও ব্যবধান কমানোর পর ৮৫ মিনিটে আলবিসেলেস্তেদের সমতায় ফেরান আরেক বদলি অভিষিক্ত উইঙ্গার ওকাম্পোস। দ্বিতীয় গোলটির জোগানদাতা বেয়ার লেভারকুসেনের আলারিও।

বিজ্ঞাপন

এদিন বল দখলের লড়াইয়ে এগিয়ে ছিল আর্জেন্টিনা (৫৪ শতাংশ)। তবে আক্রমণে আধিপত্য ছিল জার্মানির। তারা গোল বরাবার মোট ১১টি শট নেয় যার ছয়টি ছিল গোলমুখে। বিপরীতে, আর্জেন্টিনার আট শটের তিনটি ছিল গোলমুখে। এই তিনটি শটই ছিল দ্বিতীয়ার্ধে, যা থেকে দুটি গোল পেয়ে যায় তারা।

জার্মানির নিয়মিত খেলোয়াড়দের সাতজন চোটের কারণে খেলতে পারেননি এ ম্যাচে। টনি ক্রুজ, লেরয় সানে, অ্যান্টোনিয়ো রুডিগার, টিমো ভার্নার, লিয়ন গোরেৎজকা, ম্যাথিয়াস গিন্টার ও জোনাথান টাহ- এদের কেউই ছিলেন না। ফিটনেস ঘাটতি থাকায় লো মাঠে নামাননি মার্কো রিউস ও ইলকাই গুন্দোগানকেও। তারা দুজন ছিলেন বেঞ্চে।

অন্যদিকে, আর্জেন্টিনাও তাদের অধিনায়ক লিওনেল মেসিকে ছাড়া আতিথ্য নেয় পুরনো শত্রু জার্মানির। তিনি রয়েছেন তিন মাসের নিষেধাজ্ঞায়। স্কোলোনি স্কোয়াডে রাখেননি দুই অভিজ্ঞ সেনা সার্জিও আগুয়েরো ও অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়াকেও। তাছাড়া সাউথ আমেরিকা মহাদেশের সেরা ক্লাব প্রতিযোগিতা কোপা লিবার্তাদোরেসের সেমিফাইনাল ম্যাচের কারণে বোকা জুনিয়র্স ও রিভারপ্লেটের কোনো ফুটবলারকেও পায়নি আর্জেন্টিনা।

অর্থাৎ, তারকাদের অনুপস্থিতিতে জার্মানির অনিয়মিত ও নতুনরা নিজেদের মেলে ধরেন এ ম্যাচে। আর আর্জেন্টিনাও তাদের বেশ কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ ফুটবলারকে ছাড়া চাপ ঠেলে সরিয়ে ঘুরে দাঁড়িয়ে ড্র আদায় করে নেয়।

Bellow Post-Green View