চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

প্রয়োজনে বছরের পর বছর সরকার অচল রাখবেন ট্রাম্প

মেক্সিকোর সঙ্গে সীমান্তে দেয়াল বানানোর খরচ বাজেটে অন্তর্ভুক্ত করতে এখনও অনড় অবস্থানে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এই দাবি মেনে না নিলে প্রয়োজনে বছরের পর বছর সরকার অচল রাখতে রাজি তিনি।

হোয়াইট হাউজ থেকে জানানো হয়েছে, ট্রাম্প এই ইস্যুতে পিছু হটতে একদমই নারাজ।

বিজ্ঞাপন

মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে ডোনাল্ড ট্রাম্পের সই ছাড়া কোনো চুক্তি ও অনুমতিপত্র কার্যকর হয় না। ফলে নতুন বাজেট পাস হওয়ার জন্যও তার সই প্রয়োজন।

কিন্তু ট্রাম্প সেই বাজেটে সই করছেন না কারণ সেখানে যুক্তরাষ্ট্র-মেক্সিকো সীমানা জুড়ে বিশাল প্রাচীর নির্মাণের জন্য কোনো অর্থবরাদ্দ দেয়া হয়নি। তার দাবি, এই প্রাচীরের জন্য অন্তত ৫শ’ কোটি মার্কিন ডলার সরকারি বরাদ্দ দিতেই হবে।

২২ ডিসেম্বর প্রথম প্রহর (২১ ডিসেম্বর দিবাগত রাত ১২টা) থেকে নতুন বাজেট চুক্তি কার্যকর হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ট্রাম্পের সই না থাকায় বাজেট পাস হয়নি। ফলে সরকারি কর্মকাণ্ডে আংশিক অচলাবস্থা চলছে গত দু’সপ্তাহ ধরে

বিজ্ঞাপন

এ বিষয়ে সমঝোতায় পৌঁছাতে মার্কিন কংগ্রেসের সদস্যদের সঙ্গে বৈঠকও করেছেন ট্রাম্প। তবে বৈঠকের পর ডেমোক্র্যাটরা জানিয়েছেন, ট্রাম্প এই ইস্যুতে একদমই অনড়। তিনি আবারও বলেছেন, প্রাচীর নির্মাণে বরাদ্দ ছাড়া কোনো বিলে সই করবেন না।

বরং প্রয়োজনে মাসের পর মাস, এমনকি বছরকাল অব্দি সরকার আংশিক অচল রাখতে রাজি আছেন ট্রাম্প।

ডেমোক্র্যাটরা প্রেসিডেন্টের এই দাবির পুরোপুরি বিরোধী।

বৈঠক থেকে বের হয়ে রোজ গার্ডেনে ট্রাম্প নিজেও জানান, দাবি মানা না হলে প্রয়োজনে তিনি সত্যিই কাজটি করবেন। সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমি সত্যিই এ কথা বলেছি। আমার মনে হয় না এমনটা হবে, তবে আমি প্রস্তুত।’

বাজেট ঘোষণায় দেরির কারণে সৃষ্ট অচলাবস্থায় যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় ৮ লাখ সরকারি কর্মকর্তা ২২ ডিসেম্বর থেকে বেতন পাচ্ছেন না বলে জানিয়েছে বিবিসি।

Bellow Post-Green View