চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

প্রেমিককের জন্য ১০ লাখ ডলার উপহার ছাড়তে প্রস্তুত রাজকুমারী

প্রেমিককে বিয়ে করতে ১০ লাখ ডলার উপহার ছাড়তে প্রস্তুত জাপানি রাজকুমারী মাকো। শনিবার এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, তার বাগদত্তাকে নিয়ে বিতর্কের কারণে বছরের পর বছর বিলম্বিত হচ্ছে তাদের বিয়ে। তবে এবার আনুষ্ঠানিকভাবে এই অর্থমূল্য ছেড়ে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন রাজকুমারি।

এনডিটিভি সংবাদে তথ্য মতে, ২০১৭ সাল থেকে নিজের কলেজ সহপাঠির সাথে প্রেমের সম্পর্ক থাকলেও জাপানের রাজপ্রাসাদের নিয়ম অনুযায়ী এই বিয়ে মেনে নিতে চায় নি রাজপরিবার। তাই রাজকীয় প্রাসাদ ছেড়ে হবু স্বামীর সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধে যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি দেওয়ারও পরিকল্পনা করছেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

রাজকুমারী মাকো জাপানের ক্রাউন প্রিন্সের মেয়ে এবং সম্রাট নারুহিতোর ভাতিজি। নিজের পছন্দে সাধারণ একজনকে বিয়ে করার পরিকল্পনা করায় জাপানি রাজপরিবারের নিয়মানুযায়ী নিজের পদবী হারাবেন ২৯ বছর বয়সী মাকো।

রাজ পরিবারের বিয়ে সাধারণ বিয়ের চেয়ে অনেকটা ভিন্ন। তবে এই প্রেমিকযযুগল ঐহিত্যবাহী আনুষ্ঠানিকতা ছাড়াই বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানা গেছে।

বিজ্ঞাপন

তবে রাজপ্রাসাদের সকল আনুষ্ঠানিকতা শেষ করে এ বছর অক্টোবরেই বিয়ের করার পরিকল্পনা রয়েছে তাদের।

এদিকে, মাকোর বাবাব ক্রাউন প্রিন্স আকিশিনো গত বছর জানিয়েছিলেন, মেয়ের বিয়ের ব্যাপারে অমত নেই তার। তবে মাকোকে এজন্য জনগণের সমর্থন আদায় করে নিতে হবে। যদিও মাকো এসবের মধ্যে না গিয়ে সব ছেড়েছুড়ে প্রেমিকের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রেই সংসার পাতার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

২০২১ সালের অক্টোবরে কলেজের সহপাঠী কোমুরো কেই’র সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হওয়ার কথা রয়েছে রাজকন্যা মাকো’র। তবে বাগদান অনুষ্ঠানসহ রাজপরিবারের সদস্যকে বিয়ের ক্ষেত্রে প্রচলিত রীতিগুলোর কোনওটাই এক্ষেত্রে অনুষ্ঠিত হবে না।

রাজকুমারী মাকোর প্রেমিক কেই কোমারো বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রে আইন বিষয়ে পড়াশোনা করছেন বলে জানা গেছে।