চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

প্রেক্ষাগৃহে যেমন চলছে ‘পদ্মার প্রেম’

সত্তর দশক পরবর্তী সময়ে পদ্মা পাড়ে বসবাসরত মানুষের দিনযাপন নিয়ে নির্মিত হয়েছে সিনেমা ‘পদ্মার প্রেম’। পরিচালনা করেছেন হারুন-উজ-জামান। এ ছবির গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করছেন অ্যালেকজান্ডার বো, আইরিন সুলতানা, সুমিত সেনগুপ্ত। কলকাতায় মুক্তির পর এবার দেশের ১৯ প্রেক্ষাগৃহে শুক্রবার (১ নভেম্বর) থেকে চলছে সিনেমাটি।

সবমিলিয়ে মুক্তির ৩ দিনের মাথায় যেমন চলছে পদ্মার প্রেম, সেই খোঁজ নিয়েছে চ্যানেল আই অনলাইন। ঢাকার কয়েকটি সিনেমা হল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলাপ করে জানা গেল, উপচে পড়া ভিড় না থাকলেও মোটামুটি (এভারেজ) চলছে ‘পদ্মার প্রেম’।

দেশের ঐতিহ্যবাহী মধুমিতা সিনেমা হলে প্রদর্শিত হচ্ছে ‘পদ্মার প্রেম’। প্রেক্ষাগৃহটির কর্ণধার ও সাবেক প্রদর্শক সমিতির সভাপতি ইফতেখার নওশাদ চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন: হাউজফুল না গেলেও এভারেজ দর্শক আছে। শুক্রবার, শনিবার বেশ দর্শক ছিল। তিনি বলেন: ছবি ভালো। ব্যবসায়িক হিসেব বাদ দিলে ‘পদ্মার প্রেম’ বিভিন্ন ফেস্টিভ্যালে এগিয়ে থাকবে।

ফার্মগেটের আনন্দ সিনেমা হলে চলছে ‘পদ্মার প্রেম’। হলের দায়িত্বে আছেন নতুন ম্যানেজার শামদুদ্দিন মোহাম্মদ। তিনি জানালেন, ছবি মোটামুটি ভালো চলছে। কিন্তু হলের কিছু লোকের দুর্নীতির কারণে ব্যবসা উনিশ-বিশ হচ্ছে। তার ভাষ্য: ছবি একেবারে খারাপ না। পরিবার নিয়ে দেখার মতো। স্বল্প পরিসরে ভালো করার প্রয়াস পেয়েছি। আয়োজন আরেকটু বড় হলে হয়তো আরও ভালো হতে পারতো। মুক্তিযুদ্ধের পরবর্তী সময়ে পদ্মার তীরবর্তী মানুষের জীবনযাপন এ প্রজন্ম জানতে পারবে।

বিজ্ঞাপন

শ্যামলী সিনেমা হলের ম্যানেজার আকতার বলেন: শুক্র-শনিবার এই দুদিনে যা দর্শক এসেছে বেশীরভাগ পরিবার নিয়ে। এই ছবি নিয়ে অনেক প্রত্যাশা ছিল না। তারপরেও বলবো বেশ ভালো চলছে। তবে প্রচার-প্রচারণায় জোর দিলে দর্শক আরও বেশি আসতো।

‘পদ্মার প্রেম’ সিনেমার কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করছেন চিত্রনায়িকা আইরিন। চ্যানেল আই অনলাইনকে তিনি জানালেন, সিনেমাতে পদ্মা চরিত্রেই অভিনয় করেছেন। বললেন: আমার কাছে একেবারে চরিত্রটি নতুন। সেই সত্তর দশকে ফিরে গেছি। তখনকার পদ্মাপারের একজন মেয়ে চরিত্রে কাজ করেছি। আমি এই ছবিতে মাধ্যমে যথাযথ অভিনয়ের সুযোগ পেয়েছি।

আইরিন জানান: ‘পদ্মার প্রেম’ মুক্তির প্রথমদিনেই তিনি দর্শকদের সঙ্গে বসে মধুমিতায় সিনেমাটি উপভোগ করেছেন। তার কথা, আমি চেয়েছিলাম আরও বেশি সিনেমা মুক্তি পাক। কিন্তু নির্মাণের সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা বেঁছে বেঁছে ১৯ সিনেমা হল দিয়েছেন। যারা ছবি দেখছেন তারা প্রশংসা করতে ভুলছেন না। আমার বিশ্বাস, পদ্মার প্রেম আমাকে বিভিন্ন সম্মাননা এনে দিবে।

এই সিনেমায় গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে চরিত্রে অভিনয় করেছেন একসময়ের ব্যস্ততম নায়ক অ্যালেকজান্ডার বো। তিনি বলেন, সিনেমার দর্শকরা আমাকে বেশীরভাগ অ্যাকশন ও মার্শাল আর্ট ঘরানার ছবিতে বেশি দেখেছেন। কিন্তু আমি এবার পদ্মার প্রেমে একজন মাঝির চরিত্রে অভিনয় করেছি। এই চরিত্রে প্রথমবার কাজ করলাম। নিজেকে পুরোপুরিভাবে ভেঙেছি। পদ্মার প্রেম পুরোপুরি গল্পনির্ভর সিনেমা। আমি শতভাগ চেষ্টা করেছি ভালো করতে। যারা সিনেমাটি দেখছেন ভালো বলছেন।

বিজ্ঞাপন