চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

প্রশাসন ও বিচার বিভাগের মধ্যে দূরত্ব-মতপার্থক্য কাম্য নয়

নিম্ন আদালতের বিচারকদের চাকরির শৃঙ্খলা ও আচরণ সংক্রান্ত বিধিমালা গেজেট আকারে প্রকাশের প্রয়োজনীয়তা নেই মর্মে রাষ্ট্রপতির মতামতের কথা সর্বোচ্চ আদালতকে জানিয়েছেন আইন মন্ত্রণালয়ের দুই সচিব। কিন্তু, রাষ্ট্রপতিকে ভুল বোঝানো হয়েছে মন্তব্য করে বিচারকদের আচরণবিধি আগামী ১৫ জানুয়ারির মধ্যে প্রজ্ঞাপন আকারে জারি করতে বলেছেন প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা। আইন মন্ত্রণালয়ের দুই বিভাগের সচিবকে ব্যাখার জন্য আদালতে তলব করেছিলেন তিনি। সোমবার (১২ ডিসেম্বর) দুই সচিব আদালতে হাজিরও হয়েছিলেন। বিষয়টি আদালত হয়ে গণমাধ্যম থেকে জনগণ জানতে পারছে। প্রধান বিচারপতি বলেছেন, ‘রাষ্ট্রপতিকে মন্ত্রণালয় থেকে ভুল বোঝানো হচ্ছে। মন্ত্রণালয় কারসাজি করবে আর বদনাম নেবে সর্বোচ্চ আদালত, তা গ্রহণযোগ্য নয়। কারও চাপ ছাড়াই যেন জনগণ বিচার পায় তাই চান তারা (বিচার বিভাগ)।’ বিষয়টি বিচার বিভাগের স্বাধীনতার সঙ্গে সম্পর্কিত উল্রেখ করে তিনি বলেছেন, ‘এ বিষয়ে বিচার বিভাগ কোন সমঝোতা করবে না।’ বিচার বিভাগ হলো মানুষের ভরসার স্থল। বর্তমানে সারা দেশে প্রায় ৩০ লাখের কাছাকাছি মামলা বিচারাধীন রয়েছে। ওই সংখ্যা থেকে বুঝা যায় দেশের আদালতগুলোতে মামলার জট প্রকট আকার ধারণ করেছে। এ অবস্থায় প্রশাসন ও আদালতের মধ্যে কোন ভুল বোঝাবুঝিতে জনগণের মনে আস্থাহীনতা তৈরি হতে পারে। এর ফলে দেশের মধ্যে বিদ্যমান নানা কূচক্রীমহল পরিস্থিতির সুযোগ নিতে পারে বলে ধারণা করা অমূলক হবে না। সুতরাং স্ব স্ব ক্ষেত্রে দায়িত্বপ্রাপ্তদের সঠিক আচরণ ও নির্দেশনার মাধ্যমে বিচার বিভাগ ও প্রশাসনের ভাবমূর্তি উন্নয়নে কীভাবে পদক্ষেপ নেয়া যায় তার দিকে দ্রুত দৃষ্টি দেয়া জরুরি বলে আমরা মনে করি।

Bellow Post-Green View