চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

প্রশংসা পাচ্ছে নেটফ্লিক্সের ‘রায়’, সৃজিতের দুই পর্বে মুগ্ধ দর্শক

২৫ জুন ওটিটি প্ল্যাটফর্ম নেটফ্লিক্সে মুক্তি পেয়েছে সত্যজিৎ রায়ের ছোটগল্প নিয়ে তৈরি অ্যান্থলজি সিরিজ ‘রায়’-এর টিজার। ‘রায়’ পরিচালনার দায়িত্বে আছেন অভিষেক চৌবে, সৃজিত মুখার্জি ও ভাষাণ বালা। অ্যান্থলজি সিরি‌জটি দর্শকের প্রশংসা পাচ্ছে। বিশেষ করে সৃজিতের দুটি পর্ব মুগ্ধ করেছে দর্শকদের।

সত্যজিৎ রায়ের চারটি ছোট গল্প অবলম্বনে এই অ্যান্থলজি ছবি। প্রথম পর্বে নাম ‘হাঙ্গামা হ্যায় কিউ বরপা’। পর্বটি পরিচালনা করেছেন অভিষেক চৌবে এবং অভিনয় করেছেন মনোজ বাজপেয়ী ও গজরাজ রাও। দ্বিতীয় পর্ব সৃজিত মুখার্জি পরিচালিত ‘ফরগেট মি নট’। এই পর্বে অভিনয় করেছেন আলী ফজল ও শ্বেতা বসু প্রসাদ। তৃতীয় পর্বও সৃজিত মুখার্জির। নাম ‘বহুরূপী’। অভিনয়ে কেকে মেনন এবং বিদিতা বাগ। চতুর্থ পর্ব পরিচালনা করেছেন ভাষাণ বালা। পর্বটির নাম ‘স্পটলাইট’। অভিনয় করেছেন হর্ষবর্ধন কাপুর।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

ওটিটি-র প্রধান চ্যালেঞ্জ, দর্শকের মনোযোগ ধরে রাখা। সেই কাজটি বেশ ভালোভাবেই করতে পেরেছে ‘রায়’। তবে সত্যজিতের সৃষ্টিকে নিজেদের মতো করে পরিবেশন করেছেন নির্মাতারা। কোথাও অভিনয় মুগ্ধ করেছে, আর কোথাও স্ক্রিনপ্লে।

‘রায়’-এর চারটি কাহিনীর মধ্যে সৃজিত নির্দেশিত দু’টি পর্বই সবচেয়ে বেশি সাহিত্যনির্ভর। সৃজিতের নির্মাণ বরাবরই মুগ্ধ করে দর্শকদের। ‘বহুরূপী’তে মনোজ বাজপেয়ী, গজরাজ রাও-এর অভিনয় গতি এনে দিয়েছে অ্যান্থলজিতে।

একে সত্যজিতের গল্প, তার ওপর নেটফ্লিক্স। দুটি মিলে এমুহূর্তে ‘রায়’ নিয়ে সরগরম সোশ্যাল মিডিয়া। তবে সবার কাছেই যে ‘রায়’ ভালো লেগেছে তা নয়। নেটিজেনদের একাংশ উচ্ছ্বসিত হলেও আরেক অংশ সমালোচনা করছে। অনেকের কাছেই একঘেয়ে লেগেছে গল্পগুলো। প্রথম গল্পটির নির্মাণও দুর্বল মনে হয়েছে কারো কারো কাছে।