চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

প্রথম ধাপের কাজ শুরু করেছেন বাইডেন

যুক্তরাষ্ট্রে নব নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন হোয়াইট হাউসে প্রবেশের প্রথম ধাপের কাজ শুরু করেছেন।

এরই মধ্যে শুরু হয়ে গেছে পরিকল্পনার কাজ। করোনাভাইরাস মহামারী মোকাবেলা করাই যুক্তরাষ্ট্রের নতুন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রথম লক্ষ্য।

বিজ্ঞাপন

নিজেদের রূপান্তর পরিকল্পনার কথা বলতে গিয়ে বাইডেনের টিম জানায়, আরো বেশি বেশি করোনা পরীক্ষা করা হবে এবং আমেরিকানদের মাস্ক পরার কথা বলা হবে। তিনি অর্থনীতিতেও নজর দিবেন, বর্ণবাদ নিয়ন্ত্রণ করবেন এবং জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে কাজ করবেন বলে জানিয়েছেন।

আসছে জানুয়ারিতে ক্ষমতা গ্রহণের পর কি কি কাজ করবেন তা নিয়ে পরিকল্পনা সাজাচ্ছেন বাইডেন। সেখানে কিছু নির্বাহী আদেশকেও ঘুরিয়ে ফেলা হবে।

যুক্তরাষ্ট্রের গণমাধ্যম জানিয়েছে, বাইডেন প্যারিস জলবায়ু চুক্তিতে আবার যোগ দিবেন। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা থেকে সরে আসার সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করে নিবেন। সাতটি মুসলিমপ্রধান দেশের উপর থেকে ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা তুলে দিবেন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে শিশু হিসাবে প্রবেশ করে অনিবন্ধিত অভিবাসীদের অভিবাসন মর্যাদা দেওয়ার ওবামার যুগের নীতি পুনরুদ্ধার করবেন।

করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণে ট্রাম্পের পদক্ষেপ থেকে পুরোপুরি পরিবর্তন দেখা যাবে বাইডেনের পদক্ষেপে।  বাইডেনের দল জানিয়েছে, তারা মানুষের জন্য বিনামূল্যে নিয়মিত পরীক্ষণের ব্যবস্থা করবে এবং সম্প্রদায়কে পরিষ্কার, ধারাবাহিক, প্রমাণ ভিত্তিক নির্দেশিকা দেবে।

বিজ্ঞাপন

সারাদেশে বাধ্যতামূলক মাস্ক পরার আইনও চান বাইডেন, তার মতে সেটাই লাখ লাখ জীবন বাঁচাতে পারে। তিনি চান প্রত্যেকটি আমেরিকান যখনই বাড়ির বাইরে লোকজনের কাছাকাছি থাকবে তখনই যেন মাস্ক পরে থাকে। রাজ্য গভর্নর এবং স্থানীয় সম্প্রদায় যেন সেটা বাধ্যতামূলক করে দেয়।

বাইডেন করোনা পরিস্থিতিতে মুখ থুবড়ে পড়া যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতি উদ্ধারের কথাও বলেছেন। দেশটিতে এখন লাখ লাখ মানুষ বেকার। উৎপাদন বাড়িয়ে, অবকাঠামোতে বিনিয়োগ করে, শিশুসেবা বেশ সহজলভ্য করে এবং সম্পদের বিভাজন কমিয়ে তা পুনরুদ্ধারের চেষ্টা করা হবে।

বর্ণবাদ নিয়ন্ত্রণে কাজ করতে চান বাইডেন। তিনি কৃষ্ণাঙ্গ ও সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের জন্য সাশ্রয়ী মূল্যে আবাসন, ন্যায্য আচরণ ও শ্রমিকদের বেতন এবং জাতিগত সম্পদের বৈষম্য হ্রাস করার জন্য নীতি নির্ধারণকারী মার্কিন কেন্দ্রীয় ব্যাংক ফেডারেল রিজার্ভকে সক্ষম করাসহ অন্যান্য পদক্ষেপ চান।

মার্কিন পুলিশব্যবস্থারও পরিবর্তন আনতে চান নব-নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট। চোকহোল্ড ব্যবহার নিষিদ্ধ চান তিনি। কারণ এতে করে পুলিশের হাতে অনেক মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। পুলিশ বাহিনীর কাছে ‘যুদ্ধের অস্ত্র’ স্থানান্তর বন্ধ করা এবং একটি জাতীয় পুলিশ তদারকি কমিশন তৈরি করারও পরিকল্পনা তার।

যুক্তরাষ্ট্রের কারাগারে জনসংখ্যা কমাতে আগ্রহী বাইডেন। যাদের বেশিরভাগই কৃষ্ণাঙ্গ এবং ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর।

২০২১ সালের ২০ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬ তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেবেন বাইডেন।