চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

প্রথমবার শর্টফিল্মে আফজাল হোসেন

অভিনেতা-নির্মাতা হিসেবে খ্যাতি অর্জন করেছেন আফজাল হোসেন। মঞ্চ, নাটক, চলচ্চিত্র সব মাধ্যমের অভিনেতা হিসেবে তিনি সফল। পাশাপাশি নাটক বিজ্ঞাপন নির্মাতা হিসেবেও তিনি আলোচিত। ৪৬ বছরের বর্ণিল ক্যারিয়ারে এই প্রথম অন্যরকম একটি কাজ করলেন আফজাল হোসেন। তিনি জানান, প্রথমবার শর্টফিল্মে অভিনয় করছেন।

অভিনয়ে আগের মতো নিয়মিত নন আফজাল হোসেন। সর্বশেষ জি ফাইভে মুক্তি পাওয়া মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর ‘লেডিজ অ্যান্ড জেন্টেলম্যান’ ওয়েব সিরিজে দেখা গিয়েছিল তাকে। এবার আফজাল হোসেন শর্টফিল্ম ‘মর্নিং কফি’তে অভিনয় করলেন।

আফজাল হোসেল ছাড়াও অভিনয় করেছেন জাকিয়া বারী মম। পরিচালনা করেছেন বাসার জার্জিস। তিনি চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন, ৯টি শর্টফিল্ম নির্মিত হয়েছে। সেগুলোর মধ্যে আমি দুটি বানিয়েছি। তারই একটি ‘গুডমর্নিং কফি’। আমেরিকান অ্যাম্বাসির উদ্যোগে বানানো হয়েছে। এটি মুক্তি পাবে ৪ ডিসেম্বর প্রজন্ম ওয়েব নামে একটি ফেসবুক পেজে।

বিজ্ঞাপন

পরিচালক বাসার জার্জিস, মম ও আফজাল হোসেন

আফজাল হোসেন জানান, তিনি কম কাজ করেন। কাজের ক্ষেত্র আর বাসা ছাড়া সঙ্গত কারণে কোথাও যাই না। তাই এ প্রজন্মের সঙ্গে তার যোগাযোগ কম। সোশ্যালাইজিংও খুব একটা করেন না। তাছাড়া সহজেই কেউ ভাবেন না তাকে নিয়ে কাজ করবে। কিন্তু পরিচালক বাসার জার্জিস ভেবেছে। তার কনটেন্টটা আমার কাছে আলাদা লেগেছে।

আফজাল হোসেন মনে করেন, যে কোনো অভিনেতার ভেতরে সবসময় ভিন্ন ভিন্ন ধাঁচের চরিত্র করার আকাঙ্ক্ষা থাকে।

তিনি বলেন, কিছুদিন আগে মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর ‘লেডিজ অ্যান্ড জেন্টেলম্যান’-এ অভিনয় করে নিজের মধ্যেও আনন্দ হয়েছিল। ওরকম একটা চরিত্র উপভোগ করার সময় নতুন একটা ছেলে (বাসার জার্জিস) আলাদা চরিত্রের প্রস্তাব করে। শুনে ভালো লেগেছে দুই কারণে। এক হচ্ছে আলাদা চরিত্র, অন্যটি নতুন প্রজন্মের সঙ্গে কাজ। তাদের ধ্যানধারণার সঙ্গে পরিচিত হওয়া।

বিজ্ঞাপন