চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

প্রতিমাসে নতুন গান রিলিজ দিবে ‘শিরোনামহীন’

মাঝখানে কিছুটা ছন্দপতন হলেও ফের ঘুরে দাঁড়িয়েছে দেশের অন্যতম জনপ্রিয় ব্যান্ড দল শিরোনামহীন। গেল অক্টোবরে হঠাৎ দল থেকে ভোকাল তানযীর তুহীনের চলে যাওয়ার পর ফের নতুন লাইন-আপে শ্রোতা দর্শকের সামনে আসছে দলটি। শুধু তাই না, এখন থেকে শ্রোতা দর্শকের জন্য প্রতি মাসে একটি গান রিলিজ দেয়ার পরিকল্পনা করছেন তারা। এমন আনন্দ সংবাদই চ্যানেল আই অনলাইনের সঙ্গে শেয়ার করলেন দলটির প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ও বেইজ গিটারিস্ট জিয়াউর রহমান জিয়া।

বর্তমান যুগ ভিজ্যুয়ালের। শোনার সঙ্গে সঙ্গে এখন দেখারও চাহিদা তৈরি হয়েছে মানুষের। আর তারুণ্যের ব্যান্ড যেহেতু ‘শিরোনামহীন’, তাই শ্রোতাদের চাহিদা পূরণে সব সময় প্রতিশ্রুতিবদ্ধ তারা। আর সে কারণেই এবার প্রতিমাসে একটি মিউজিক ভিডিও রিলিজের পরিকল্পনা করছে দলটি। তারই ধারাবাহিকতায় শিগগির অনলাইনে আসতে চলেছে শিরোনামহীনের একেবারে নতুন তিনটি মিউজিক ভিডিও।

নতুন মিউজিক ভিডিও নিয়ে চ্যানেল আই অনলাইনকে জিয়া বলেন, গত আঠারো দিন ধরে আমরা শিরোনামহীনের প্রতিটি সদস্য কঠোর পরিশ্রম করে যাচ্ছি। টানা সময় দিতে হয়েছে আমাদের। এরইমধ্যে আমরা তিনটি একেবারে নতুন মিউজিক ভিডিও তৈরি করে ফেলেছি। জাদুকর, বোহেমিয়ান ও বারুদসমুদ্র নামের তিনটি গানের শুটিং গত শনিবার শেষ করলাম। গানগুলোর মিক্সড মাস্টার চলছে।

এখন থেকে প্রতি মাসে একটি গান দর্শক শ্রোতাদের জন্য রিলিজ দিবেন জানিয়ে জিয়া আরো বলেন, আমাদের প্ল্যান আছে এখন থেকে আমরা প্রতি মাসে একটি মিউজিক ভিডিও রিলিজ করবো। আগামি মাসে আমার লেখা এবং দিয়াত খানের সুরে রিলিজ পাবে জাদুকর গানটির মিউজিক ভিডিও। এরপর জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারিতে বোহিমিয়ান ও বারুদসমুদ্র গান দুটি রিলিজ পাবে। আর এরমধ্যে নিশ্চয় আরো কিছু গান আমরা করে ফেলতে পারবো, যারফলে প্রতিমাসে গান রিলিজের ধারাবাহিকতা বজায় রাখা যাবে। আর এভাবেই বছর শেষে একটা অ্যালবামও হয়ে যাবে শিরোনামহীনের।

গানগুলোর মিউজিক ভিডিও নির্মাণ সম্পর্কে জানতে চাইলে জিয়া বলেন, আমরা আসলে এভাবেই গান রেকর্ড করে ইউটিউবে দিতে পারতাম, কিন্তু এমন সস্তাভাবে গানের ভিডিও দিতে চাইনি। আমাদের গানের ভিডিওগুলো নির্মাণ করেছেন আশরাফ শিশির। উনার সঙ্গে কিন্তু আমাদের দেনা পাওনার সম্পর্ক নয়, ভালোবাসার সম্পর্ক। উনার প্রথম সিনেমা বানানোর চেষ্টা ‘আমরা একটি সিনেমা বানাবো’র মিউজিকের সঙ্গে আমরা জড়িত ছিলাম। তো এই সময়ে তিনি এগিয়ে এসেছেন। আর গান তিনটির প্রোডাকশন ব্য়য় বহন করছে প্রাণ-আপ। শিরোনামহীন-এর এই সময়ে তাদের এই হেল্প করার মানসিকতা আমাদের বিস্মৃত হওয়ার সুযোগ নেই।

শেয়ার করুন: