চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

প্রতিদিন লাখ মানুুষ করোনায় আক্রান্তের শঙ্কা যুক্তরাষ্ট্রে

চীন থেকে শুরু হওয়া কোভিড-১৯ করোনাভাইরাস যুক্তরাষ্ট্রে কেন্দ্রে পরিণত হয়ে দেশটি বর্তমানে বিশ্বের শীর্ষ করোনা আক্রান্ত দেশ। প্রতিদিন অসংখ্য মানুষ আক্রান্ত হচ্ছে। সর্বশ টানা চারদিন ৪০ হাজারের অধিক করে করোনা শনাক্ত হয়েছে দেশটিতে।

এবার এই সংখ্যাটি প্রতিদিন এক লাখে পরিণত হলে বিস্মিত হবেন না বলে সতর্ক করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষস্থানীয় সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ ডা. অ্যান্থনি ফৌসি।

মার্কিন সিনেটের কাছে তিনি বলেছেন, দেশে করোনাভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা প্রতিদিন ১ লাখে পৌঁছে গেলে আমি বিস্মিত হবো না। স্পষ্টই আমরা এখন ভাইরাস নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারছি না।

“দেশের মানুষ সামাজিক দূরত্ব ও মাস্ক পরিধান করছে না“- কারণ হিসেবে বলছেন ফৌসি।

এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টারস ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশনের (সিডিসি) মুখ্য উপপরিচালক অ্যানে শুখান্ট বলেছেন, ভাইরাস নিয়ন্ত্রণ করা অনেক কঠিন হয়ে পড়েছে। কারণ, এটি সহজে নিয়ন্ত্রণের পর্যায়ে এখন আর নেই।

ওয়াল্ডোমিটারের  তথ্যতে, যুক্তরাষ্ট্রে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে ৪৬ হাজার ৪২ জন। মৃত্যু হয়েছে ৭৬৪ জনের।

বিজ্ঞাপন

এ নিয়ে টানা চতুর্থদিনের মতো ৪০ হাজারের ওপর করোনা আক্রান্ত গুণছে যুক্তরাষ্ট্র।

দেশটিতে এখন পর্যন্ত মোট করোনা আক্রান্ত হয়েছে ২৭ লাখ ২৭ হাজার ৮৫৩ জন। আর মোট মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৩০ হাজার ১২২ জনের।

গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে মোট করোনা আক্রান্ত হয়েছে ১ লাখ ৭৪ হাজার এবং মারা গেছে ৫ হাজার ৫২ জন।

বিশ্বে এখন করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১ কোটি ৫ লাখ ৮৫ হাজার ১১০ জন। আর মোট মৃত্যু হয়েছে ৫ লাখ ১৩ হাজার ৯১৩ জন। আর সুস্থ হয়ে উঠেছে ৫৭ লাখ ৯৫ হাজার ৯ জন।

গতকাল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা নতুন করে হুঁশিয়ারী দিয়ে বলেছে, ভাইরাসের তীব্র রূপ দেখা এখনও বাকি রয়ে গেছে এবং চলমান পরিস্থিতি শেষ হতেও অনেক সময় লাগবে।

সংস্থাটির প্রধান টেডরস আধানম গেব্রিয়াসিস সোমবার ভার্চুয়াল বৈঠকে বলেছেন: আমরা সকলে চাইছি বর্তমান পরিস্থিতির অবসান হোক। আমরা চাই প্রতিটি জীবন বাঁচুক। কিন্তু কঠিন বাস্তবতা হলো এ পরিস্থিতি সহসা শেষ হচ্ছে না।

শেয়ার করুন: