চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

প্রতিদিনই প্রাসঙ্গিক ইরফান!

এক বছরেরও বেশি সময় পার হয়ে গেছে বলিউড অভিনেতা ইরফান খান প্রয়াত হয়েছেন। কিন্তু তারপরেও তিনি তার ভক্ত অনুরাগী থেকে শুরু করে সহকর্মীদের মুখে মুখে। প্রতিদিনই প্রাসঙ্গিক ইরফান!

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে সেটাই যেন প্রমাণ করলেন বলিউডের জনপ্রিয় দুই পরিচালক আসিফ কাপাডিয়া এবং অমিত কুমার।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

সাক্ষাৎকারটির শুরুতেই ইরফান খান অভিনীত ‘দ্য ওয়ারিওর’ খ্যাত পরিচালক আসিফ কাপাডিয়া জানান, ‘দ্য ওয়ারিওর’ ছবিতে ইরফান খান যে চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন তা অনন্য। তিনি যে সত্যই একজন যোদ্ধা ছবিতেও সেটির প্রমাণ দিয়েছেন। তার মত একজন তুখোড় অভিনেতা দ্বিতীয়বার আর তৈরী হবে কিনা বলা মুশকিল।

বিজ্ঞাপন

এসময় ‘মুনশুন শুটআউট’ খ্যাত পরিচালক আমিত কুমার জানান, ইরফান খানের সঙ্গে আমাদের যে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক ছিল তা আজও মিস করি। তবে সবচেয়ে বেশি মিস করি ইরফানকে।

আসিফ কাপাডিয়া আরো উল্লেখ করেন যে, শেষবার যখন মুম্বাইয়ে গিয়েছিলাম তখন অমিতকে নিয়ে ইরফানের সঙ্গে দেখা করেছিলাম। তখন ইরফান বলেছিল, আমাদের বোধ হয় আর দেখা হবেনা। এবং আশ্চর্যজনক ভাবে সেটিই ঘটেছিল। ইরফানের সঙ্গে আর দেখা হয়নি, হবেও না। তবে এটা বলা মোটেই বাহুল্য হবে না যে, ইরফান খান শুধুমাত্র একজন দুর্দান্ত অভিনেতাই নন, ছিলেন একজন দুর্দান্ত আধ্যাত্মিক সত্তার অধিকারী!

২০২০ সালের ২৯ এপ্রিল ক্যানসারে আক্রান্ত ইরফান খান শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

১৯৮৮ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ইরফান খান অভিনীত প্রথম সিনেমা মীরা নায়ার পরিচালিত ‘সালাম বোম্বে’। ১৯৯০ সালে ‘এক ডক্টর কি মৌত’ সিনেমায় তার অভিনয় দারুণ প্রশংসিত হয়। অতঃপর আসিফ কাপাডিয়ার ‘দ্য ওয়ারিয়র’ (২০০১) সিনেমার প্রধান চরিত্রে অভিনয়ের পর পশ্চিমা বিশ্বে পরিচিত মুখ হয়ে ওঠেন। এরপর তাকে আর ফিরে তাকাতে হয়নি।