চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

পোশাক শিল্প পুনরুদ্ধারই হবে মূল লক্ষ্য: ফারুক হাসান

কোভিড-১৯ মোকাবেলায় পোশাক শিল্পের সংকটগুলো চিহ্নিত করে তা সমাধান এবং শিল্প পুনরুদ্ধারে প্রণোদনার অর্থ পরিশোধের সময়সীমা বাড়ানোর উদ্যোগ নেয়া হবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন বিজিএমইএর নির্বাচনে প্রার্থী সম্মিলিত পরিষদের প্যানেল লিডার ফারুক হাসান।

মঙ্গলবার রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁয়ে বিজিএমইএর নির্বাচন উপলক্ষে সম্মিলিত পরিষদের ইশতেহার ঘোষণাকালে তিনি এ প্রতিশ্রুতি দেন।

বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন

ফারুক হাসান বলেন, কোভিড-১৯ মোকাবেলায় ও পোশাক শিল্প পুনরুদ্ধারে প্রণোদনার অর্থ পরিশোধের সময়সীমা ১৮ মাস থেকে আরো বাড়ানোর জন্য সরকারের সাথে সর্বোচ্চ আলোচনা করা হবে। এছাড়া কিস্তির আকার যেনো ছোট করা হয় সেই চেষ্টাও থাকবে। সংকট প্রতিকারে স্বল্পমেয়াদী, মধ্যমেয়াদি এবং দীর্ঘমেয়াদী নীতি-সহায়তার প্রস্তাব করা হবে।

নতুন বাজার সম্প্রসারণে উদ্যোগ নেয়া হবে জানিয়ে তিনি বলেন, নতুন বাজারে পোশাক রপ্তানির জন্যে প্রণোদনা ৪ শতাংশ থেকে ৫ শতাংশ উন্নীত করা হবে। দক্ষিণ কোরিয়া, জাপান, রাশিয়া ল্যাটিন আমেরিকা, ভারতসহ সম্ভাবনাময় নতুন বাজার গুলোতে রোড শো আয়োজন এবং গুরুত্বপূর্ণ মেলাগুলোতে শিল্প উদ্যোক্তাদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করা হবে। মধ্যপ্রাচ্য ও আফ্রিকায় পোশাকের শুল্কমুক্ত রপ্তানি নিশ্চয়তার উদ্যোগ নেয়া হবে।

ফারুক হাসান বলেন, বিশ্ববাজারে পোশাকের ইমেজ সংকট রয়েছে। এই ইমেজ বৃদ্ধি করে রপ্তানি কীভাবে বাড়ানো যায় অর্থাৎ মার্কেট শেয়ার বাড়ানোর বিষয়ে সর্বাত্মক চেষ্টা থাকবে সম্মিলিত পরিষদের। পাশাপাশি শ্রমিক ছাঁটাই কমানো হবে বলেও প্রতিশ্রুতি দেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

অনুষ্ঠানে বিজিএমইএর সাবেক সভাপতি ও এফবিসিসিআইয়ের সহসভাপতি সিদ্দিকুর রহমান বলেন, ইশতেহার দেয়া বড় বিষয় নয়, মুল বিষয় হলো-পোশাক শিল্পে যখন যেই সমস্যা হবে তা মোকাবেলা করে এই শিল্পকে এগিয়ে নেয়া। আর সেটা করবে সম্মিলিত পরিষদ।

সংঠনটির সাবেক সভাপতি ও সংসদ সদস্য শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন বলেন, পোশাক খাতে রানা প্লাজা দুর্ঘটনা ও তাজরীন ফ্যাশনে অগ্নিকাণ্ডসহ নানা দুর্ঘটনা ঘটেছে সম্মিলিত পরিষদের নেতৃত্বের সময়েই। কিন্তু আমরা সাহস ও দৃঢ়তার সাথে তা মোকাবেলা করেছি।

সংঠনটির সাবেক সভাপতি ও সংসদ সদস্য সালাম মুর্শেদি বলেন, দীর্ঘদিনের অভিজ্ঞতায় বলছি, বিজিএমইএর ইতিহাসে বর্তমান সম্মিলিত পরিষদ এত অভিজ্ঞ টিম আর কখনোই পায়নি। পোশাক খাতের বর্তমান সংকট মোকাবেলা করার জন্য যোগ্য নেতা দরকার। জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক পর্যায়ে সেই নেতৃত্ব দেয়ার জন্য ফারুক হাসানের বিকল্প নেই।

বিজিএমইএতে নেতৃত্ব নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে কাদা ছোঁড়াছুঁড়ি চলছে, যা এই শিল্পের জন্য একটা বড় সংকট। এই সংকট কীভাবে মোকাবেলা করবেন?

এমন প্রশ্নের জবাবে সালাম মুশের্দি বলেন, কোনো কাদা ছোঁড়াছুঁড়িতে আমরা নেই। শিল্পকে এগিয়ে নেয়াই হবে মূল লক্ষ্য।

অনুষ্ঠানটির সঞ্চালনা করেন বিজিএমইএর সাবেক সহ-সভাপতি মোহাম্মদ নাছির। এ সময় সম্মিলিত পরিষদের প্রার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।